ব্রনের দাগ দূর করার ১০টি সেরা উপায়

বর্তমান সময়ে ব্রণ সমস্যাটি অনেক বড় একটি সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। বর্তমানে ছেলে-মেয়ে উভয়েরই এই ব্রণ সমস্যাটি হয়ে থাকে। আবার অনেক সময় দেখা যায় যে ব্রণের কারণে মুখের বিভিন্ন জায়গায় ছোপ ছোপ কালো দাগ হয়ে গিয়েছে। কিন্তু সঠিক পদ্ধতি না জানার কারণে আমরা এই ব্রণের দাগ দূর করতে পারি না। যার কারণে আমাদের সৌন্দর্য অনেকটাই কমে যায়। 
ব্রনের দাগ দূর করার ১০টি সেরা উপায়
ব্রণের দাগ দূর করার বেশ কয়েকটি উপায় রয়েছে। আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে আপনি বোনের দাগ দূর করার ১০টি সেরা উপায় সম্পর্কে জানতে পারবেন। আপনি যদি ব্রণের দাগ দূর করার দশটি সেরা উপায় সম্পর্কে জানতে চান তাহলে পুরো আর্টিকেলটি করুন। আশা করি আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে আপনি আপনার ব্রণ সমস্যা থেকে দূরে থাকতে পারবেন।

পোস্টের সূচিপত্রঃ ব্রনের দাগ দূর করার ১০টি সেরা উপায়

ভূমিকা

বর্তমানে ব্রণ অনেক মানুষের মুখে দেখা যায়। ব্রণ যে শুধু মানুষের সৌন্দর্য নষ্ট করে এমনটি নয় ব্রণ হওয়ার কারণে সব সময় অস্বস্তিকর লাগে। সুন্দর চেহারা কেইবা না চায়। প্রত্যেকেই চায় যে তাকে দেখতে যেন সুন্দর লাগে। কিন্তু এই ব্রণ হওয়ার মাধ্যমে সেই সৌন্দর্যটা অনেকটাই কমে যায়। এবং অনেক সময় ব্রণ হওয়ার কারণে মুখের মধ্যে কালো দাগ হয়ে যায়। 
সঠিক পদ্ধতি এবং সঠিক উপায় না জানার কারণে সেই ব্রণের দাগগুলো আমরা দূর করতে পারি না। তবে আর চিন্তার কোন কারণ নেই আজকে আমরা আপনাকে ব্রনের দাগ দূর করার ১০টি সেরা উপায় সম্পর্কে ধারণা দিব। যার মাধ্যমে আপনি আপনার ব্রণের দাগ চিরতরে দূর করে ফেলতে পারবেন। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক ব্রণের দাগ দূর করার ১০টি সেরা উপায় সম্পর্কে।

ব্রণ কেন হয়

ব্রণ কেন হয় এ প্রশ্নটির উত্তর হয়তোবা অনেকেই জানেনা। এবং এ না জানার কারণে তারা ব্রন হওয়ার কারণ সম্পর্কে সতর্ক থাকতে পারে না। যার কারণে তাদের মুখে প্রচুর পরিমাণে ব্রণ দেখা যায়। ব্রণ হওয়ার বিভিন্ন ধরনের কারণ রয়েছে। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক ব্রণ হওয়ার কারণ কি।
  • ব্রণ হওয়ার প্রথম কারণ হচ্ছে ত্বকের অযত্ন। প্রতিদিন বাহিরে যাওয়ার কারণে আমাদের ত্বকে বিভিন্ন ধরনের ধুলোবালি বা ময়লা লেগে যায়। এ ধুলোবালি বা ময়লা থেকে তৈরি হতে পারে ব্রণ।
  • অনেক মেয়ে মানুষ আছে যারা সব সময় মেকআপ করে থাকে। কিন্তু অনেক সময় দেখা যায় যে তারা বাইরে থেকে এসে তাদের মেকআপ করা মুখ ভালোভাবে ধুয়ে ফেলে না। এবং এই কারণে তাদের মুখে ব্রণ হতে দেখা যায়।
  • হরমোনের পরিবর্তনের কারণেও মুখে ব্রণ হয়ে থাকে। তাই যদি হরমোনের পরিবর্তনের কারণে আপনার মুখে ব্রণ দেখা যায় তাহলে আপনার উচিত হবে একজন ত্বক বিশেষজ্ঞের কাছে থেকে পরামর্শ নেওয়া।
  • অনেক সময় টেনশনের মাধ্যমেও ব্রণ হয়ে থাকে। তাই সব সময় আপনার উচিত হবে টেনশন থেকে দূরে থাকা।
  • অনেক মানুষের দেখা যায় যে সব সময় মুখ তৈলাক্ত হয়ে থাকে। মুখের এই তৈলাক্ত ভাব থেকে তৈরি হতে পারে ব্রণ।
  • এমন অনেক মানুষ আছে যারা সব সময় প্রচুর পরিমাণে ঘেমে থাকে। এই অতিরিক্ত ঘামের কারণে আপনার ত্বকে ব্যাকটেরিয়া তৈরি হতে পারে। এবং এর কারণে আপনার মুখে ব্রণ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
  • এমন অনেক মেয়ে মানুষ আছে যারা বিভিন্ন ধরনের মেকআপ ব্যবহার করে থাকে। কিন্তু সে মেকআপ গুলো ভালো না হওয়ার কারণে মুখে ব্রণ হতে পারে।
  • যাদের ঘুম কম হয় তাদের মুখে ব্রণ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এজন্য ঘুম কম হওয়ার কারণে অনেক সময় মুখে ব্রণ হয়।

কি খেলে ব্রণ দূর হয়

ব্রণ মানুষের মুখের সৌন্দর্যকে খুব তাড়াতাড়ি নষ্ট করে দেয়। এজন্য ব্রণ যাতে না হয় সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। এমন কিছু কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো খাবার মাধ্যমে মুখের ব্রণ দূর করা যায়। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক যে কি খেলে ব্রণ দূর হয়।
  • মাছ খাওয়ার মাধ্যমে ব্রণ দূর হয়। কারণ মাছে বিভিন্ন ধরনের উপাদান রয়েছে যা ত্বকের জন্য খুবই ভালো কাজ করে। এছাড়া মাছের তেল ও ত্বকের জন্য খুবই ভালো।
  • ব্রণ দূর করার জন্য আপনার উচিত হবে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করা। কারণ শরীরের মধ্যে যে টক্সিন পদার্থ থাকে সেটি পানি পান করার মাধ্যমে বের হয়ে যায়। এবং এর কারণে ত্বক ভালো থাকে এবং মুখে ব্রণ হয় না। তাই একজন মানুষের উচিত প্রতিদিন ৮ ক্লাস করে পানি পান করা।
  • আপনি চাইলে বন্ধুর করার জন্য প্রতিদিন ডাব বা নারিকেলের পানীয় পান করতে পারেন।
  • লেবুর রস খাওয়ার মাধ্যমেও ব্রন দূর করা যায়। কারণ লেবুর রসে যে সাইট্রিক এসিড থাকে তার রক্তে থাকা দূষিত পদার্থ বের করে দেয়।
  • তরমুজে রয়েছে ভিটামিন এ ভিটামিন বি এবং ভিটামিন সি। তরমুজ ত্বকের বিভিন্ন ধরনের দাগ দূর করতে সহযোগিতা করে। এ ছাড়া ত্বক রাখে উজ্জ্বল এবং পরিষ্কার।
  • দই খাওয়ার মাধ্যমে ত্বক পরিষ্কার থাকে। এছাড়া দই খাওয়ার মাধ্যমে ব্রণ হওয়া থেকে দূরে থাকা যায়।
  • আঙ্গুর খেতে কে না পছন্দ করে। লাল আঙ্গুর খাওয়ার ফলে আপনি ব্রণ হওয়া থেকে দূরে থাকতে পারবেন।

ব্রনের দাগ দূর করার ১০টি সেরা উপায়

আপনি যদি জানতে চান যে ব্রণের দাগ দূর করার ১০টি সেরা উপায় সম্পর্কে তাহলে এখনই মনোযোগ সহকারে পড়ুন।
  1. মুলতানি মাটি ব্রনের দাগ দূর করার জন্য খুবই কার্যকরী একটু উপাদান। মুলতানি মাটি ব্যবহার করার মাধ্যমে মুখ থেকে তৈলাক্ত ভাব দূর হয়ে যায় এবং ব্রণের দাগ দূর করে।
  2. মানুষের মুখে যে তৈলাক্ত ভাব থাকে তা দূর করতে শসার রস খুবই ভালো কাজ করে। আপনি যদি প্রতিদিন শসার রস দিয়ে মুখ পরিষ্কার করেন তাহলে আপনার মুখে ব্রনের দাগ হবে না।
  3. নারিকেলের তেল ব্যবহারের মাধ্যমে মুখের ব্রণের দাগ দূর করা যায়। কারণ নারিকেল তেলে রয়েছে এন্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান।
  4. হলুদ ত্বকের জন্য খুবই কার্যকরী একটি উপাদান। ত্বকে হলুদ ব্যবহার করার মাধ্যমে যেমন ত্বক উজ্জ্বল হয় তেমনি এটি ব্রণের দাগ দূর করতেও সহযোগিতা করে থাকে। প্রাচীনকালে হলুদ ত্বকের বিভিন্ন ধরনের দাগ দূর করতে ব্যবহার করা হতো।
  5. অ্যালোভেরার জেল ব্যবহার করার মাধ্যমে যেমন ব্রণ দূর করা যায় তার সাথে সাথে ব্রণের দ্বারা হওয়া দাগগুলো দূর করা যায়। এজন্য বলা যায় যে অ্যালোভেরা ত্বকের জন্য খুবই ভালো।
  6. তুলসী পাতার রস ব্রনের দাগ দূর করতে খুবই ভালো কাজ করে। কারণ তুলসী পাতাতে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের আয়ুর্বেদিক গুণ। আপনি যদি রাতে শোবার আগে তুলসী পাতার রস আপনার ব্রণের দাগ হওয়া স্থানে লাগান তাহলে সে দাগগুলো আস্তে আস্তে মুছে যাবে।
  7. ব্রেকিং সোডা দিয়ে আপনি চাইলে ঘরোয়া উপায়ে আপনার মুখে থাকা ব্রনের দাগ দূর করতে পারেন।
  8. আপনারা অনেকেই কমলালেবু খাওয়ার ফলে কমলালেবুর খোসা ফেলে দেন। কিন্তু আপনি কি জানেন এই কমলালেবুর খোসার মাধ্যমে আপনার মুখের ব্রণের দাগ দূর করা যেতে পারে। কমলালেবুর খোসা গুড়ো করে সেটির সাথে এক টেবিল চামচ পরিমাণ মধু মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে সেটি মুখে ব্যবহার করার মাধ্যমে ব্রণের দাগ দূর করা যায়।
  9. ডিম যে শুধু শরীরের জন্য একটি পুষ্টিকর খাবার এমনটি নয়। আপনি চাইলে ডিমের সাদা অংশটি দিয়ে আপনার ব্রণের দাগ দূর করতে পারেন। আপনি যদি রাতে প্রতিদিন শোবার আগে ডিমের সাদা অংশটির সাথে হালকা লেবুর রস হয়েছে আপনার মুখে ব্রণের দাগ হওয়া জায়গায় মেসেজ করেন তাহলে আপনার মুখের ব্রণের দাগ দূর হয়ে যাবে।
  10. নিম পাতা ত্বকের জন্য খুবই ভালো। আপনি চাইলে নিম পাতার পেস্ট বানিয়ে সেটি ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনার মুখের ব্রণের দাগ দূর করে ফেলতে পারেন। নিমপাতা আপনার ত্বকে থাকা ব্যাকটেরিয়া গুলোকে মেরে ফেলবে।

ব্রণের দাগ দূর করার ক্রিম

বর্তমানে এখন বাজারে মুখের ব্রণের দাগ দূর করার জন্য বিভিন্ন ধরনের ক্রিম পাওয়া যায়। আপনি চাইলে এই সকল ক্রিম ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনার মুখের ব্রণের দাগ দূর করতে পারেন। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক সেই ক্রিম গুলোর নাম কি।
  • Blue Nectar Natural Vitamin C Face Cream for Glowing Skin
  • Glowpink Dark Spot Corrector Cream
  • RE’ EQUIL Skin Radiance Cream
  • Dermafique Age Defying Moisturiser
  • Bioaqua Acne Removal Cream
  • Mankind Acnestar removal gel
  • Nivea Whitening Oil Control Moisturizer for Men
  • Garnier Men Oil Clear Fairness cream

ব্রণের দাগ দূর করার ঔষধের নাম

ব্রণের দাগ নিয়ে আর নয় চিন্তা। বর্তমানে এখন বাজারে বিভিন্ন ধরনের ঔষধ এসেছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনি আপনার ব্রণের দাগ চিরতরে দূর করতে পারেন। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক কোন ঔষধ গুলো ব্যবহারের মাধ্যমে ব্রণের দাগ দূর হয়ে যায়।
  • Acnegel
  • Clindacin Lotion 1%
  • Clindax Lotion 1%
  • Clinex 1%
  • Aclene Plus Gel
  • Fona Plus
  • Nomark
  • Adaben Duo Gel
  • Freshlook
  • Nomark gel

ছেলেদের মুখের ব্রণ দূর করার উপায়

বেশিরভাগ সময় দেখা যায় যে ছেলেদের মুখে প্রচুর পরিমাণে ব্রণ হয়ে থাকে। কিন্তু সঠিক উপায় না জানার কারণে এই ব্রণগুলো দূর করা যায় না। ছেলেদের মুখের ব্রণ দূর করতে হলে সব সময় মুখ পরিষ্কার রাখতে হবে। বাইরে থেকে আসার পরে মুখ সবসময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করে রাখতে হবে। কারণ বাইরে থাকা ময়লা বা জীবানুর মাধ্যমে আপনার মুখে পূরণ হতে পারে। আপনার পক্ষে যদি সম্ভব হয় তাহলে প্রতিদিন দুইবার করে গোসল করুন। 

তৈলাক্ত ত্বকে সব থেকে বেশি ব্রণ হয়ে থাকে। তাই মুখের তৈলাক্ত ভাব দূর করার জন্য সব সময় মুখ পরিষ্কার রাখুন। মুখে সাবানের পরিবর্তে ফেসওয়াশ ব্যবহার করার চেষ্টা করুন। অনেক ছেলের একটু বদ অভ্যাস আছে যে তারা মুখে ব্রণ দেখতে পেলে নখ দিয়ে খোঁটাখুটি করে। কিন্তু এমনটি করার মাধ্যমে আপনার মুখে ব্রনের দাগ হয়ে যেতে পারে। তাই কখনো ব্রণ দেখা দিলে নখ দিয়ে খোঁটাখুটি করবেন না।

শেষ কথা

উপরে ব্রণ সম্পর্কে বিভিন্ন ধরনের তথ্য দেওয়া হয়েছে। এবং ব্রণ কিভাবে ভালো করা যায় এবং ব্রণের দাগ গুলো কিভাবে চিরতরে মুছে ফেলা যায় সে সকল বিষয় সম্পর্কে যাবতীয় আলোচনা করা হয়েছে। আপনার যদি মুখে প্রচুর পরিমাণে ব্রনের দাগ হয়ে থাকে তাহলে আপনি চাইলে উপরের দেওয়া নিয়মগুলো মেনে চলতে পারেন। এবং সেই নিয়ম গুলো মেনে চলার ফলে আপনার মুখের ব্রণের দাগ চিরতরে মুছে যাবে। আজকের আরটিকাটি যদি আপনার কাছে ভালো লেগে থাকে তাহলে অন্যদের কাছে শেয়ার করুন যাতে অন্যরাও জানতে পারে কিভাবে ব্রণের দাগ চিরতরে মুছে ফেলা যায়।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url