এটিএম বুথে কার্ড আটকে গেলে যা করবেন

বর্তমান সময়ে প্রায় কমবেশি অনেক মানুষই বিভিন্ন ধরনের কাজে এটিএম কার্ড ব্যবহার করে থাকে। সেই এটিএম কার্ডের মাধ্যমে টাকা তুলতে হলে তাদেরকে যেতে হয় এটিএম বুথে। কিন্তু যখন এটিএম বুথের মাধ্যমে টাকা তুলতে যাওয়ার সময় অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় যে কার্ড আটকে যায় তখন পড়তে হয় নানা রকম ভোগান্তির মধ্যে। তাই আজকে আমরা আপনার সুবিধার্থে আলোচনা করব যে এটিএম বুথে কার্ড আটকে গেলে যা করবেন। 
এটিএম বুথে কার্ড আটকে গেলে যা করবেন
আপনি যদি জানতে চান যে এটিএম বুথে কার্ড আটকে গেলে যা করবেন তাহলে পুরো পোস্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ভালোভাবে মনোযোগ সহকারে পড়ুন। এতে করে আপনি এটিএম বুথে কার্ড আটকে গেলে যা করবেন এ বিষয়ে জানার পাশাপাশি এটিএম কার্ডের প্রায় সকল বিষয় সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে পারবেন।

পোস্টের সূচিপত্রঃ এটিএম বুথে কার্ড আটকে গেলে যা করবেন

ভূমিকা

সারা বিশ্বের কম বেশি অনেক মানুষই এখন এটিএম কার্ড ব্যবহার করে এবং এটিএম কার্ডের সাহায্যে এটিএম বুথে গিয়ে টাকা তুলে থাকে। কিন্তু কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায় যে কোন না কোন সমস্যার কারণে তাদের এটিএম কার্ডটি এটিএম বুথে মেশিনের মধ্যে আটকে যায়। তখন সেই মানুষটি ভয় পেয়ে যায় এবং এটিএম কার্ড বের করার জন্য অস্থির হয়ে পড়ে। তাই এটিএম বুথে কার্ড আটকে গেলে কখনো ভয় পাবেন না। তবে আপনি যদি নিজের এলাকার বাইরে অথবা অন্য কোথাও বেড়াতে গিয়ে আপনার এটিএম কার্ডটি এটিএম বুথের মেশিনের মধ্যে আটকে যায় তাহলে পড়তে হয় একটি বড় অসুবিধার মধ্যে। 
এমনকি আপনার যখন খুবই গুরুত্বপূর্ণ কাজের জন্য টাকার প্রয়োজন হয় তখন যদি আপনার কার্ডটি আটকে যায় তাহলে বিভিন্ন ধরনের সমস্যার মধ্যে পড়তে হয়। তাই এই সকল সমস্যার মধ্যে যাতে আপনি না পড়েন বা এ সকল সমস্যার মধ্যে পড়লেও আপনি কি করবেন সে সকল বিষয় সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করবো। তাহলে চলুন জেনে নিন এটিএম বুথে কার্ড আটকে গেলে যা করবেন।

এটিএম কার্ড আটকে যাওয়ার কারণ

এটিএম কার্ড ব্যবহার করার সময় বেশ কিছু ভুলের কারণে আপনার এটিএম কার্ডটি এটিএম বুথের মেশিনের মধ্যে আটকে যেতে পারে। আবার অনেক ক্ষেত্রে আপনার ভুল না থাকার কারণে এটিএম কার্ডটি এটিএম বুথের মেশিনের মধ্যে আটকে যেতে পারে। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক এটিএম কার্ড আটকে যাওয়ার কারণ সম্পর্কে।
  • আপনি যদি এটিএম কার্ড দিয়ে এটিএম বুথে টাকা তুলতে গিয়ে একাধিকবার ভুল পিন দিয়ে থাকেন তাহলে অনেক সময় এর কারণে আপনার এটিএম কার্ডটি এটিএম বুথে আটকে যেতে পারে।
  • অনেক সময় দেখা যায় যে অনেক বছর যাবত এটিএম কার্ড ব্যবহার না করার কারণে এটিএম কার্ডটি ব্লক হয়ে যায়। তাই আপনি যদি এই ব্লক হওয়া এটিএম কার্ড থেকে টাকা তুলতে যান তাহলে অনেক সময় আপনার কার্ডটি এটিএম বুথের মধ্যে আটকে দিতে পারে।
  • অনেক সময় দেখা যায় যে এটিএম বুথের মধ্যে নেটওয়ার্কের সমস্যা হয়ে থাকে। আপনি যদি এটিএম বুথের নেটওয়ার্কের সমস্যার সময়ে টাকা তোলার চেষ্টা করেন তাহলে অনেক সময় এই নেটওয়ার্ক সমস্যার কারণে আপনার কার্ডটি এটিএম বুথের মধ্যে আটকে যেতে পারে।
  • আবার অনেক ক্ষেত্রে আপনি যদি নষ্ট বা ড্যামেজ কার্ড ব্যবহার করে থাকেন তাহলে এই নষ্ট বা ড্যামেজ কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমেও আপনার কার্ডটি আটকে যেতে পারে।
  • আপনার কার্ডের মেয়াদ যদি শেষ হয়ে যায় এবং সেই মেয়াদ শেষ হওয়া এটিএম কার্ডটি দিয়ে টাকা তুলতে যান তাহলে অনেক সময় মেয়াদ শেষ হওয়ার কারণে আপনার কার্ডটি আটকে যেতে পারে।
  • অনেক সময় আপনি যদি আপনার এটিএম কার্ড দিয়ে টাকা তোলার পরে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে এটিএম মেশিন থেকে কার্ডটি না বের করে নেন তাহলে অনেক সময় এ কারণে আপনার এটিএম কার্ডটি এটিএম বুথে আটকে যেতে পারে।
  • আবার অনেক সময় যে সকল এটিএম মেশিনে কার্ড সাপোর্ট করে না সেই সকল মেশিনে এটিএম কার্ড প্রবেশ করানোর মাধ্যমে আপনার এটিএম কার্ডটি আটকে যেতে পারে।

এটিএম বুথে কার্ড আটকে গেলে যা করবেন

বর্তমানে কমবেশি অনেক মানুষই এটিএম বুথে গিয়ে টাকা তুলে। কিন্তু মানুষ টাকা তোলার জন্য ব্যবহার করেন এটিএম কার্ড। কিন্তু টাকা তুলতে গিয়ে যখন এই এটিএম কার্ডটি বুথের মেশিনের মধ্যে আটকে যায় তখন মনের মধ্যে নানা রকম ভয়-ভীতি কাজ করে যে, এখন আমি কিভাবে টাকা তুলব বা এখন আমি কার্ডটি এটিএম মেশিন থেকে কিভাবে বের করব। তাই আপনি সেই সময় ভয় না পেয়ে যা করবেন সে বিষয় সম্পর্কে কিছু আলোচনা করা হলো।
  • আপনি যদি কখনো আপনার এটিএম কার্ড ব্যবহার করার সময় আপনার এটিএম কার্ডটি বুথের মেশিনের মধ্যে আটকে যায় তাহলে সর্বপ্রথম আপনি যে কাজটি করবেন সেটি হলো আপনি যে ব্যাংকের এটিএম কার্ড ব্যবহার করবেন সেই ব্যাংকের কাস্টমার কেয়ার নাম্বারে ফোন করে আপনার সমস্যাটি জানাবেন এবং কিছুক্ষণের জন্য আপনার কার্ডটি ব্লক করে রাখতে বলবেন যাতে করে সেই কার্ডের মাধ্যমে কোন প্রকার লেনদেন না হয়।
  • আপনি যে এটিএম বুথে টাকা তুলতে গেছেন আপনার কার্ডটি যদি সেই ব্যাংকের এটিএম কার্ড হয় তাহলে আপনার কার্ডটি বের করতে তেমন কোন সমস্যার মধ্যে পড়তে হবে না।
  • আর যদি আপনার কার্ডটি অন্য কোন ব্যাংকের হয়ে থাকে এবং আপনিও অন্য কোন ব্যাংকের এটিএম বুথে টাকা তুলতে গেছেন তাহলে আপনি তৎক্ষণাৎ আপনার নিকটস্থ সেই এটিএম বুথের ব্যাংকের যেকোনো একটি শাখায় গিয়ে যোগাযোগ করুন। তারা আপনাকে আপনার কার্ডটি ফিরে পেতে সহযোগিতা করবে।
  • অনেক সময় বিভিন্ন ধরনের নেটওয়ার্ক সমস্যার কারণে আপনার লেনদেনটি ধীরে হতে পারে। এবং এর কারণে অনেকে মনে করেন যে তার কাজটি এটিএম মেশিনে আটকে গেছে। তাই যদি একটু দেরি হয় এটিএম কার্ডটি বের হতে তাহলে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন এটিএম বুথের মধ্যে।
  • এটিএম কার্ড আটকে যাওয়ার পর আপনি যদি আপনার এটিএম কার্ডটি রিপ্লেস করতে চান তাহলে আপনি আপনার এটিএম কার্ডটি যে ব্যাংক থেকে তৈরি করেছেন সে ব্যাংকে আপনার পরিচয় পত্র এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে গিয়ে যোগাযোগ করুন।

এটিএম কার্ড ব্যবহারে সতর্কতা

আপনি যদি একজন এটিএম কার্ড ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে কিছু সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। তা না হলে আপনার টাকাগুলো চলে যেতে পারে অন্য কারো কাছে বা আপনার টাকাগুলো আটকে যেতে পারে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক এটিএম কার্ড ব্যবহার করাতে কোন কোন সর্তকতা গুলো অবলম্বন করতে হবে।
  • আপনি যদি একজন এটিএম কার্ড ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তাহলে আপনার কখনো উচিত হবে না যে আপনার এটিএম কার্ডের পিন নম্বরটি অন্য কারো সাথে শেয়ার করা। কারণ আপনার এটিএম কার্ড এর পিন নম্বরটি যদি কোন ভুল মানুষ পেয়ে থাকে তাহলে আপনার এটিএম কার্ডে থাকা টাকাগুলো নিরাপদ নাও থাকতে পারে।
  • আপনার লেনদেন শেষে অবশ্যই এটিএম কার্ডটি মেশিনের মধ্যে থেকে বের করে নেবেন। আপনি যদি আপনার এটিএম কার্ডটি মেশিনের মধ্যে থেকে বের না করে নেন তাহলে অনেক সময় এটিএম কার্ডটি মেশিনের মধ্যে আটকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
  • এটিএম কার্ডের মাধ্যমে টাকা তুলতে গিয়ে কখনো একাধিকবার ভুল পিন নম্বর প্রবেশ করানো থেকে বিরত থাকবেন।
  • আপনার কার্ডটি যদি কোনভাবে ভেঙে যায় বা নষ্ট হয়ে যায় তাহলে সেই কার্ডটি আপনি রিপ্লেস করে নিবেন।
  • আপনার এটিএম কার্ডটি ব্যবহারের পূর্বে আপনি নিশ্চিত হয়ে নিবেন যে আপনার এটিএম কার্ডের মেয়াদ আছে নাকি শেষ হয়ে গেছে।
  • আপনার লেনদেন সম্পূর্ণ হওয়ার পরে এটিএম মেশিন থেকে যে ট্রানজেকশন রেকর্ড এর একটি রিসিট বের হবে সেই রিসিটটি আপনার কাছে রাখার চেষ্টা করুন।
  • অনেক সময় দেখা যায় যে এটিএম বুথে টাকা তুলতে গিয়ে অনেক মানুষ আপনার হাতের দিকে তাকিয়ে থাকে যাতে করে দেখতে পারে আপনার পিন নম্বরটি কত। তাই কোন মানুষ যাতে আপনার পিন নম্বরটি না জানতে পারে সেজন্য আপনার শরীর দিয়ে পিন নম্বর ডায়াল করার জায়গাটি ঢেকে রাখুন।
  • এটিএম বুথে টাকা তুলতে গিয়ে আপনি যদি এটিএম বুথে থাকা সিসি ক্যামেরা কোন গোপন জায়গায় লাগানো দেখেন তাহলে তৎক্ষণাৎ ব্যাংক কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করুন।

এটিএম কার্ডের পিন ভুলে গেলে করনীয়

আপনি যদি আপনার এটিএম কার্ডের তিন নম্বর ভুলে যান তাহলে আপনি কোন লেনদেন করতে পারবেন না। এবং যার ফলে আপনি আপনার জরুরী সময় নানা ধরনের সমস্যায় পড়ে যেতে পারেন। এজন্য সব সময় আপনার পিন নম্বরটি এমন কোথাও লিখে রাখার চেষ্টা করবেন যাতে করে সেই জায়গাটি শুধু আপনি ছাড়া আর কেউ না জানে। তবে আপনি যদি ভুলবশত আপনার এটিএম কার্ডের পিনটি ভুলে যান তাহলে আপনার উচিত হবে যে আপনার এন আইডি কার্ড সহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে আপনি যেই ব্যাংক থেকে এটিএম কার্ডটি করেছেন সেই ব্যাংকে গিয়ে যোগাযোগ করুন। 

তাদের সাথে যোগাযোগ করার মাধ্যমে তারা আপনার পিনটিকে এ রিসেট করে দিয়ে নতুন করে একটি পিন সেট করে দিবে। তাছাড়া পিন নম্বর ভুলে গেলে আরো একটি করণীয় কাজ হচ্ছে আপনি যে ব্যাংক থেকে এটিএম কার্ডটি করেছেন সরাসরি সেই ব্যাংকের হেল্পলাইন নম্বরে যোগাযোগ করুন। তারা আপনাকে বলে দিবে কি করতে হবে।

এটিএম কার্ডের সুবিধা

এটিএম কার্ড ব্যবহারের অনেকগুলো সুবিধা রয়েছে। এবং সেই সুবিধাগুলো জানার পর আপনি নিশ্চয়ই এটিএম কার্ড ব্যবহার করতে চাইবেন। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক যে এটিএম কার্ড ব্যবহারের সুবিধা গুলো কি কি।
  • এটিএম কার্ড ব্যবহারের প্রথম সুবিধা হলো এই এটিএম কার্ড ব্যবহার করলে আপনাকে আর নগদ অর্থ কোথাও বহন করে নিয়ে যেতে হবে না। আপনি আপনার এটিএম কার্ডে টাকা তুলে যে কোন স্থানে গিয়ে সেই টাকাটি আবার এটিএম কার্ড থেকে তুলে নিতে পারেন।
  • এছাড়া এটিএম কার্ড ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই যে কারো সাথে লেনদেন করতে পারেন।
  • এটিএম কার্ড ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন ধরনের কেনাকাটার জন্য শপিং মলে গিয়ে বা বিভিন্ন ধরনের মার্কেটে গিয়ে আপনার ক্রয় করা পণ্যের বিল এটিএম কার্ডের মাধ্যমে পেমেন্ট করতে পারবেন।
  • এটিএম কার্ড ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনাকে আর চেক বই সাথে নিয়ে ঘুরতে হবে না।
  • আপনি যদি অন্য কাউকে টাকা পাঠানোর জন্য কোন ব্যাংকে গিয়ে থাকেন তাহলে আপনি চাইলে কিন্তু ব্যাংক সবসময় খোলা পাবেন না টাকা পাঠানোর জন্য। কিন্তু আপনি যদি কোন একটি এটিএম বুথে গিয়ে টাকা তুলতে চান বা টাকা জমা দিতে চান তাহলে সেটি আপনাকে দিন রাত ২৪ ঘন্টা সার্ভিস দিয়ে থাকবে।

এটিএম কার্ডের অসুবিধা

প্রত্যেকটি জিনিসের সুবিধা থাকার পাশাপাশি বেশ কিছু অসুবিধা থাকে। তেমনি এটিএম কার্ড ব্যবহারের সুবিধা থাকার পাশাপাশি সামান্য কিছু অসুবিধা রয়েছে। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক এটিএম কার্ডের অসুবিধা গুলো কি কি।
  • আপনি যদি এটিএম কার্ড ব্যবহার করেন তাহলে আপনাকে বাৎসরিক একটি চার্জ প্রদান করতে হবে।
  • আপনার এটিএম কার্ডের পিন নম্বর যদি কেউ জেনে যায় বা আপনার এটিএম কার্ড টি যদি হারিয়ে যায় তাহলে সেই কার্ডের রেকর্ডের মাধ্যমে সে লেনদেন করতে পারবে।
  • আপনি যদি এটিএম কার্ডের মাধ্যমে টাকা লেনদেন করেন তাহলে আপনি ব্যাংকের কাছে ঋণী হয়ে যাবেন।

শেষ কথা

আপনি ইতিমধ্যে খুবই ভালোভাবে বুঝে গেছেন যে আপনার এটিএম কার্ড কিভাবে আটকে যেতে পারে বা এটিএম কার্ড আটকে গেলে আপনি কি কি কাজ করতে পারেন। এছাড়াও আপনি আরো জানতে পেরেছেন এটিএম কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি কি কি সুবিধা পেতে পারেন এবং কি কি অসুবিধার মধ্যে পড়তে পারেন এবং এটিএম কার্ডের যদি পিন ভুলে যান তাহলে কি করতে হবে। 

আশা করি এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে আপনি ভবিষ্যতে আর এরকম কোন সমস্যার মধ্যে পড়বেন না। আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার কাছে কেমন লাগলো নিশ্চয়ই আমাদেরকে জানাবেন। এছাড়া এরকম আরো নতুন নতুন আর্টিকেল পড়ার জন্য নিয়মিত আমাদের পেজটি ভিজিট করুন। ভালো থাকুন এবং সুস্থ থাকুন ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url