মাথার খুশকি দূর করার উপায়

আপনি কি মাথার খুশকি সমস্যা নিয়ে ভুগছেন। তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি শুধুমাত্র আপনার জন্য। বর্তমান সময়ে আমাদের অনেকের মধ্যে মাথায় খুশকি এই সমস্যাটি দেখা দিয়ে থাকে। কিন্তু মাথার খুশকি দূর করার উপায় সম্পর্কে আমরা কেউই জানিনা। তাই আজকের এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে আমরা মাথার খুশকি দূর করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো।
মাথার খুশকি দূর করার উপায়
আশা করি আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়বেন যাতে করে আপনি খুশকি জাতীয় সমস্যা থেকে সমাধান লাভ করতে পারেন। চলুন শুরু করা যাক আজকের এই আর্টিকেল।

পোস্টের সূচিপত্রঃ মাথার খুশকি দূর করার উপায়

ভূমিকা

বর্তমান সময়ে আমাদের মধ্যে অনেকের মাথায় একটি সমস্যা দেখা দিচ্ছে যে মাথায় প্রচুর পরিমাণে খুশকি হওয়া। এবং দিন দিন এটির আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেড়েই যাচ্ছে। কিন্তু আমরা অনেকেই হয়তোবা মাথার খুশকি দূর করার উপায় সম্পর্কে তেমন বেশি কিছু জানিনা। যার কারণে আমাদেরকে অনেক ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হয়। আবার এই খুশির জন্য আমাদের মাঝেমধ্যে প্রচুর পরিমাণে চুল পড়ে যায়। এটি হচ্ছে আরেকটি বড় সমস্যা। বেশিরভাগ সময় শীতকালীন সময়ে মাথায় খুশকি এই সমস্যাটি দেখা দিয়ে থাকে। 

কারণ এই সময়ে একটি মানুষের মাথার চুলগুলো অনেক রুক্ষ এবং শুষ্ক অবস্থায় থাকে। তাছাড়া শীতকালীন সময় বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ খুবই কম থাকে। যার কারণে মাথার স্কাল্প গুলো রুক্ষ ও শুষ্ক হয়ে যায়। আর এই কারণেই অনেক মানুষের মাথায় এই খুশকি সমস্যাটি দেখা দিয়ে থাকে। তবে এই খুশকি দূর করার বেশ কয়েকটি উপায় রয়েছে। আজ আমরা সেই উপায় গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানব।

খুশকি কি

খুশকি হচ্ছে এমন একটি রোগ যা মানুষের মাথার খুলিতে বেশি পরিমাণে দেখা যায়। এটি হচ্ছে একটি চর্মরোগ জাতীয় রোগ। এই খুশকি হওয়ার কারণে আমাদের প্রত্যেকের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা যায়। এই খুশকি জাতীয় রোগের মাধ্যমে মাথা থেকে প্রচুর পরিমাণে চুল ঝরে পড়ে যায়। তাছাড়া খুশকি হওয়ার কারণে মাথায় প্রচুর পরিমাণে চুলকানি রোগ সৃষ্টি হয়ে থাকে। 

আবার যখন দেখা যায় যে মাথায় অতিরিক্ত পরিমাণে খুশকি হয়ে গিয়েছে তখন ফাঙ্গাস জাতীয় নানারকম সংক্রমণ মাথার খুলিতে দেখা দেয়। মাথায় যদি একবার খুশকি হয়ে যায় তাহলে সেটি দূর করা আমাদের জন্য অনেক কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে। এবং যার কারণে আমরা বিভিন্ন পরিমাণের রাসায়নিক উপাদানগুলো আমাদের মাথায় ব্যবহার করে থাকি। তবে সামান্য কিছু উপায় জানা থাকলে এই খুশকি দূর করাটা অনেকাংশেই সহজ হয়ে পড়বে আমাদের জন্য।

চুলে খুশকি হওয়ার কারণ কি

খুশকি বর্তমান সময় অনেক বড় একটি সমস্যা হয়ে দেখা দিয়েছে। এবং এটির উপরে আমাদের গুরুত্ব না দেওয়ার কারণে এই সমস্যাটি দিন দিন বেড়েই চলেছে। বিভিন্ন ধরনের কারণের জন্য আমাদের মাথায় প্রচুর পরিমাণে খুশকি হয়ে থাকে এবং এই খুশকি হওয়ার কারণে আমাদের মাথা থেকে প্রচুর পরিমাণে চুল ঝরেও পড়ে যায়। শীতকালীন সময়ে মাথায় খুশকি এই সমস্যাটি খুবই বেশি পরিমাণে লক্ষ্য করা যায়। কারণ শীতকালীন সময়ে বাতাসে আদ্রতার পরিমাণ খুবই কম পরিমাণে থাকে। 

আরে বাতাসে আদ্রতার পরিমাণ কম থাকার কারণে আমাদের চুলগুলো খুব রুক্ষ এবং শুষ্ক হয়ে ওঠে। যার ফলে আমাদের মাথায় খুশকি সমস্যাটি দেখা দিয়ে থাকে। তাছাড়াও অনেক গবেষণা করে দেখা গিয়েছে যে, আমাদের মাথা যখন প্রচুর পরিমাণে ঘেমে যায় তখন এই খুশকি জাতীয় সমস্যা টি হয়ে থাকে এবং এর ফলে মাথায় ফাঙ্গাস জাতীয় বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। 

আবার মাঝে মধ্যে আমরা মাথায় অতিরিক্ত পরিমাণে তেল ব্যবহার করে থাকি এবং এই অতিরিক্ত পরিমাণে তেল ব্যবহার করার ফলে আমাদের চুলের গোড়ায় তেল গুলো জমা হয়ে থাকে এবং এই জমা হওয়া তেলগুলোর কারণে মাথায় ছত্রাকের সংক্রমণ বেড়ে যায়। যার ফলে খুশকির সমস্যাটি দেখা দিয়ে থাকে। অনেক সময় দেখা যায় যে আমরা যে পানিতে গোসল করে থাকি সেই পানিতে ক্লোরিনের পরিমাণ অনেক বেশি থাকে। এবং এ ক্লোরিনের পরিমাণ অনেক বেশি হওয়ার কারণে আমাদের ত্বকগুলো শুষ্ক হয়ে যায় এবং যার ফলে মাথায় খুশকি এই সমস্যাটি দেখা দেয়। 

আবার এমন অনেকেই আছেন যে নিয়মিত শ্যাম্পু করাটা পছন্দ করেন না। কিন্তু এই নিয়মিত শ্যাম্পু না করার কারণে আমাদের মাথার ত্বক গুলো খুবই অপরিষ্কার অবস্থায় থেকে যায়। এবং এই অপরিষ্কার অবস্থা গুলো থেকে আমাদের মাথায় খুশকির সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবে এই খুশকি দূর করার বেশ কয়েকটি উপায় রয়েছে। যার ফলে মাথা থেকে খুশকি চিরতরে দূর হয়ে যায়।

খুশকি দূর করার সহজ উপায় কি

আমাদের অনেকেরই মাথার খুশকি দূর করার উপায় সম্পর্কে জানা নেই। তবে খুশকি দূর করার বিভিন্ন ধরনের উপায় রয়েছে। আমরা মাথায় যে তেল দেই এই তেল দেওয়ার মাধ্যমে কিন্তু খুশকি কমানো যায়। কিন্তু খুশকি দূর করার জন্য এই তেলের ব্যবহারটা একটু আলাদাভাবে করতে হয়। আমরা মাথায় সরাসরি তেল ব্যবহার না করে তেলটি হালকা গরম করে নিতে হবে। তবে খুব বেশি পরিমাণে গরম করে নেওয়া যাবে না। তেলটি গরম করা হয়ে গেলে তেলগুলো আমাদের হাতের আঙ্গুলের সাহায্যে আমাদের মাথার পুরো স্কাল্প জুড়ে ভালোভাবে মেসেজ করতে হবে। 

বেশ কিছুক্ষণ ধরে মেসেজ করার পরে তেল গুলো আমাদের সম্পূর্ণ চুলে মেসেজ করতে হবে। এবং এরপরে প্রায় এক ঘন্টার মতন সময় পরে শ্যাম্পু করে নিতে হবে। তাহলে এই খুশকি থেকে রক্ষা পাওয়া যেতে পারে। এছাড়াও লেবুর রস ব্যবহার করার মাধ্যমে আমরা খুব সহজেই মাথার খুশকি দূর করতে পারি। এর জন্য নারিকেল তেলের সাথে লেবুর রস মিশিয়ে নিয়ে মাথার স্কাল্পে ব্যবহার করলে ভালো হয়। এছাড়াও আমরা চাইলে এলোভেরার জেলের সাথে লেবুর রস মিশিয়ে মাথায় ব্যবহার করার ফলে খুশকি দূর করতে পারি। 

মাথার খুশকি দূর করার জন্য আরেকটি ভালো তাই হচ্ছে নিম পাতার গুঁড়ো এবং অলিভ অয়েল। নিম পাতাগুলো ভালোভাবে শুকিয়ে নিয়ে সেগুলো গুঁড়ো করে অলিভয়েলের সাথে মিশিয়ে মাথায় ভালোভাবে ব্যবহার করার পরে বেশ কিছুক্ষণ রেখে দিয়ে শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেললে খুশকি থেকে রক্ষা পাওয়া যেতে পারে। এছাড়াও রসুন এবং জলপাই তেল খুশকি দূর করার জন্য খুবই কার্য করে একটু উপায়। এর জন্য কিছু পরিমাণে রসুনের তেল এবং কিছু পরিমাণ জলপাইয়ের তেল একসঙ্গে মিশিয়ে নিয়ে মাথায় মেসেজ করার পর সেগুলো শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলার মাধ্যমেও খুশি থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। 

মাঝেমধ্যে কমলালেবুর খোসাও মাথার খুশকি দূর করতে সহযোগিতা পড়ে থাকে। এর জন্য এক থেকে দুইটি কমলালেবুর খোসা এবং কিছু পরিমাণে লেবুর রস মিশিয়ে ভালোভাবে পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। পেস্ট বানানো হয়ে গেলে এটি মাথায় এপ্লাই করে ৩০ মিনিটের মতো রেখে দিতে হবে এবং এরপরে শ্যাম্পু করে এগুলো ধুয়ে ফেলতে হবে। এভাবে সপ্তাহে প্রায় দুই দিনের মতো ব্যবহার করার ফলে মাথার খুশকি অনেক অংশে কমে যায়।

খুশকি দূর করার শ্যাম্পু

শীতকাল আসলেই আমাদের মাথায় খুশকির সমস্যাটি দেখা দিয়ে থাকে। তবে এই খুশকি দূর করতে বাজারে এখন বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের এন্টি ড্যানড্রাফ শ্যাম্পু পাওয়া যায়। তবে আজকে কিছু শ্যাম্পুর কথা বলব যেগুলো খুশকি দূর করতে ভালো পরিমাণে সহযোগিতা করে। খুশকি দূর করার একটি শ্যামপুর নাম হচ্ছে Dancel Shampoo-ড্যান্সেল শ্যাম্পু। এই ড্যান্সেল শ্যাম্পু চুল পড়া রোধে এবং খুশকি দূর করতে সহযোগিতা করে থাকে। 

খুশকি দূর করার আরেকটি শ্যাম্পুর নাম হল Select Plus Shampoo-সিলেক্ট প্লাস শ্যাম্পু। এটিও আমাদের মাথার খুশকি দূর করতে খুবই ভালো পরিমাণে কাজে দেয়। খুশকির জন্য কিটোকোনাল জাতীয় শ্যাম্পু গুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে Nizoder Shampoo-নিজোডার শ্যাম্পু। এছাড়াও খুশকি দূর করার আরো একটি শ্যামপুর নাম হচ্ছে Ketocon Shampoo-কিটোকন শ্যাম্পু। 

এছাড়াও আরো যে শ্যাম্পু গুলো রয়েছে যেগুলোতে কিটোকনাজল ব্যবহার করা হয় সেই শ্যাম্পু গুলো আমরা মাথার খুশকি দূর করতে ব্যবহার করতে পারি। এই শ্যাম্পু গুলো আমরা সচরাচর বিভিন্ন ধরনের ফার্মেসির দোকান বা বিভিন্ন ধরনের কসমেটিক্স এর দোকান থেকে ক্রয় করতে পারি।

শেষ কথা

উপরের আলোচনা গুলো থেকে আমরা বুঝতে পারি যে কিভাবে মাথার খুশকি দূর করা যায়। উপরে বিভিন্নভাবে মাথার খুশকি দূর করার উপায় সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। যেটি পড়ে আমরা এই মাথার খুশকি সমস্যাটি দূর করতে সফল হয়ে থাকব। এবং এই পদ্ধতি গুলোর মাধ্যমে আমাদের মাথার চুল পড়া রোধ করতে পারব। যদি আপনাদের মাথায় খুশকি হয়ে থাকে তাহলে চেষ্টা করব উপরের খুশকি দূর করার উপায় গুলো এপ্লাই করার জন্য। যাতে করে খুশকি যাতীয় সমস্যা থেকে খুবই দ্রুত সমাধান লাভ করা যায়। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url