মুখের মেছতা দূর করার উপায়

বর্তমানে এখন অনেক মানুষের মুখে মেছতা সমস্যাটি দেখা দিচ্ছে। ছেলে মেয়ে উভয়ের ক্ষেত্রে এই সমস্যাটি হয়ে থাকে। বিশেষ করে যাদের বয়স ৩৫ বছরের ঊর্ধ্বে তাদের ক্ষেত্রে এ সমস্যাটি বেশি দেখা যায়। কারণ এ বয়সের মানুষেরা তাদের ত্বকের যন্ত্র তেমনটা নেয় না। যার ফলে তাদের মুখে মেছতা দেখা যায়। 
মুখের মেছতা দূর করার উপায়
মেছতা হওয়ার প্রথম কারণ হচ্ছে অপরিচ্ছন্ন ত্বক। আজকের আমাদের আর্টিকেলের আলোচ্য বিষয়টি হচ্ছে মুখের মেছতা দূর করার উপায়। আপনার মুখে যদি মেছতা হয়ে থাকে তাহলে জেনে নিন কিভাবে সেই মেছতা দূর করবেন। তাহলে বেশি কথা না বলে এখনই চলুন জেনে নেওয়া যাক যে মুখের মেছতা দূর করার উপায়।

পোস্টের সূচিপত্রঃ মুখের মেছতা দূর করার উপায়

ভূমিকা

মুখে মেছতা হওয়ার জন্য আমাদের মুখের সৌন্দর্য অনেকটা নষ্ট হয়ে যায়। মুখে মেছতা হওয়ার কারণে দেখতে খারাপ লাগে। এবং মুখে মেছতা হওয়া একটি অস্বস্তিকর বিষয়। বিশেষ করে বয়স বাড়ার সাথে সাথে এই সমস্যাটি হয়ে থাকে। যার কারণে অনেক সময় মানুষের সামনে যেতেও লজ্জা লাগে। তবে মুখে মেছতা হওয়া এটি তো আর লুকিয়ে রাখা সম্ভব না। কিন্তু আপনি চাইলে এই মেছতা দূর করতে পারেন। মুখের মেছতা দূর করার জন্য কিছু পদ্ধতি রয়েছে। আপনি চাইলে সে পদ্ধতি গুলো মেনে চলে আপনার মুখের মেছতা চিরতরে দূর করতে পারেন। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক সেই উপায় গুলো সম্পর্কে।

মেছতা রোগ কি

মুখের মেছতা দূর করার জন্য প্রথমে আপনাকে জানতে হবে যে মুখের মেছতা আসলে কি। মেছতা হচ্ছে এমন জিনিস যেটি মুখের উপরিভাগে হয়ে থাকে এবং নাকের দুই পাশে হয়ে থাকে। অনেকের আবার মুখে জন্মগত যা হওয়ার কারণে সেটিকে মুখের মেছতা হিসেবে ধরে নেয়। এটি সম্পূর্ণ একটি ভুল ধারণা।

মেছতা হওয়ার কারণ কি

বিভিন্ন কারণে মুখের মেছতা হয়ে থাকে। মুখের মেছতা দূর করতে হলে আগে আপনাকে জানতে হবে যে মেছতা কেন হয়। সূর্যের সংস্পর্শে যাওয়ার ফলে ত্বকের মধ্যে যে মেলানিন উৎপন্ন হয় সেটির মাধ্যমে মেছতা হয়ে থাকে। শরীরের যে অংশগুলোতে সব থেকে বেশি পরিমাণ সূর্য রশি করে সে অংশগুলিতে মেছতা দেখা যায়। আবার অনেক সময় হরমোন জনিত কারণেও মুখের মেছতা হয়ে থাকে। একজন গর্ভবতী নারীর গর্ভকালীন সময়ে বিভিন্ন ধরনের হরমোনের পরিবর্তনের কারণে মুখে মেছতা হয়ে থাকে। যারা থাইরয়েড রোগে আক্রান্ত তাদের হরমোনের মধ্যে বেশি তারতম্য দেখা যায় এ কারণে তাদের মুখে মেছতা হয়ে থাকে।

মুখের মেছতা দূর করার উপায়

আপনি যদি চান যে আপনার মুখের সৌন্দর্যকে ধরে রাখবেন তাহলে সব সময় আপনার ত্বকের যত্ন নিতে হবে। যখন আপনার মুখে ত্বকের যত্নের অভাব দেখা দিবে তখন আপনার মুখে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। এর মধ্যে একটি সমস্যা হচ্ছে মুখের মেছতা। কিন্তু এমন কিছু পদ্ধতি রয়েছে এ পদ্ধতি গুলো মেনে চলার কারণে আপনার মুখের মেছতা দূর করা যায়। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক মুখের মেছতা দূর করার উপায় সম্পর্কে।
  • লেবুর রস মুখের মেছতা দূর করার জন্য খুবই ভালো কাজ করে। আপনি যদি প্রতিনিয়ত লেবুর রস মুখে ব্যবহার করেন তাহলে আপনার মুখ থেকে মেছতা দূর হয়ে যেতে পারে।
  • অ্যালোভেরার জেল ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই মুখের মেছতা দূর করতে পারেন। আপনি যদি নিয়মিত আপনার মুখে এলোভেরা জেল ব্যবহার করেন তাহলে আপনার মুখে থাকা মেছতার দাগ দূর করা যায়।
  • পাকা পেঁপের পেস্ট মুখে লাগিয়ে রাখার মাধ্যমেও আপনি মুখের মেছতা দূর করতে পারেন। কারণ পাকা পেঁপে ত্বকের জন্য খুবই ভালো কার্যকরি।
  • আলুর রস মুখের মেছতা সহ মুখের বিভিন্ন ধরনের দাগ দূর করতে খুবই ভালো কাজ করে। তাই আপনি যদি মুখের মেছতা দূর করতে চান তাহলে নিয়মিত মুখে আলুর রস ব্যবহার করতে পারেন।
  • মধু ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। আপনি যদি নিয়মিত আপনার মুখে মধু ব্যবহার করেন তাহলে দেখবেন যে আপনার মুখ হয়ে উঠেছে উজ্জ্বল। এবং আপনার মুখে যেগুলো দাগ থাকবে সেগুলো চিরতরে মুছে যাবে।
  • আপনি যদি মুখের মেছতা দূর করতে চান তাহলে কমলালেবুর খোসার গুড়োর সাথে সামান্য পরিমাণ দুধ মিশিয়ে মুখে ব্যবহার করে দেখতে পারেন। এটি ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনার মুখের মেছতা দূর হয়ে যাবে।

মেছতা দূর করার ক্রিমের নাম

বর্তমানে এখন সব কিছুরই নতুন নতুন চিকিৎসা বের হয়েছে। এবং সবগুলো রোগেরই কোন না কোন ওষুধ পাওয়া যায়। তেমনই মুখের মেছতা দূর করার জন্য বিভিন্ন ধরনের ক্রিম রয়েছে। যেগুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনার মুখের মেছতা গুলো সম্পূর্ণরূপে দূর হয়ে যেতে পারে। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক সেই ক্রিম গুলোর নাম।
  • White Sunblock Cream
  • Berberis Cream
  • P Vita Melasma Cream
  • মেলাট্রিন ক্রিম
  • ট্রাইমেলা ক্রিম
উপরে যে ক্রিমগুলোর নাম দেওয়া হয়েছে এই ক্রিমগুলো আপনি যদি নিয়মিত ব্যবহার করেন তাহলে আপনার মুখের মেছতা দূর হয়ে যাবে। যার ফলে আপনাকে সুন্দর দেখাবে।

ছেলেদের মেছতা দূর করার উপায়

আপনি যদি চান যে আপনার মুখের মেছতা দূর করতে তাহলে আপনি সবসময় আপনার মুখ পরিষ্কার এবং পরিচ্ছন্ন রাখবেন। কারণ পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার অভাবে মুখে মেছতা হয়ে থাকে। মুখে হাত দেওয়ার আগে ভালোভাবে হাত পরিষ্কার করে নিন যাতে করে আপনার হাতের দ্বারা মুখে কোন জীবাণু প্রবেশ না করে। আপনি যদি একজন চকলেট, মিষ্টি এবং কফি লাভার হয়ে থাকেন তাহলে চেষ্টা করবেন যে এগুলো একটু কম করে খাবার। 

কারণ বেশি পরিমাণ মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়ার মাধ্যমে মুখে মেছতা সমস্যাটি হতে পারে। অনেক ছেলে মানুষের একটি বদ অভ্যাস আছে যে তারা অনেক রাত পর্যন্ত জেগে থাকে। কিন্তু এই বেশি রাত করে জেগে থাকা মুখের মেছতা হওয়ার একটি কারণ। তাই মুখের মেছতা দূর করার জন্য আপনি প্রতিনিয়ত সময় মতো ঘুমিয়ে পড়বেন।

মেয়েদের মেছতা দূর করার উপায়

মেয়েদের মুখের মেছতা দূর করার জন্য সব সময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। আপনি যদি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন না থাকেন তাহলে আপনার মুখের মেছতা কখনোই দূর করতে পারবেন না। আর যখন আপনি বাইরে থেকে আসবেন কখন অবশ্যই বাসার ভেতরে ঢুকে আগে সম্পূর্ণ মুখ ভালোভাবে পরিষ্কার করবেন। যতটা সম্ভব আপনার মুখকে সূর্যের আলোক রশি থেকে দূরে রাখার চেষ্টা করবেন। 

যেসব উপাদান মুখের মেছতা দূর করে থাকে সে সকল উপাদান আপনার মুখে ব্যবহার করুন। এর ফলে আপনার মুখের মেছতা দূর হয়ে যাবে। এই নিয়মগুলো মেনে চললে আপনি আপনার মুখের মেছতা চিরতরে দূর করতে পারবেন। সব সময় চেষ্টা করবেন নিজের ত্বকের প্রতি যত্নশীল হওয়ার জন্য।

শেষ কথা

উপরে আমরা মেছতা সম্পর্কে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি। এবং মুখের মেছতা কিভাবে দূর করা যায় সে সম্পর্কেও উপরে বলা হয়েছে। তাই আপনি যদি মেছতা সমস্যায় বুঝেন তাহলে উপরের দেওয়া নিয়ম গুলো মেনে চলার মাধ্যমে আপনি আপনার মুখের মেছতা চিরতরে দূর করতে পারেন। আশা করি আজকের পোস্টটি আপনার কাছে ভালো লেগেছে। আজকের এই পোস্ট সম্পর্কে যদি আপনার কোন মন্তব্য থাকে তাহলে আমাদেরকে কমেন্ট বক্সের মাধ্যমে জানাবেন। এছাড়া আপনার যদি নতুন কিছু বিষয় সম্পর্কে জানার আগ্রহ থাকে তাহলে আমাদেরকে অবশ্যই জানাবেন আমরা সেটির উপর আর্টিকেল লেখার চেষ্টা করবো ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url