সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসা

সাধারণত বর্ষাকালে বা বৃষ্টির সময় বেশি পরিমাণে বাসা বাড়িতে সাপ দেখা যায়। সাত সাধারণত পানিতে থাকতে পছন্দ করে না। তাই তারা বর্ষাকালে শুকনো জায়গায় থাকার জন্য মানুষের বাড়িতে ঢুকে পড়ে। আর সে সময়েই বিভিন্ন কারণে সাপ মানুষকে কামড় দিয়ে থাকে। 
সাপে কাটা রোগীর  চিকিৎসা
কোন সাপ যদি মানুষকে কাটে তাহলে সে মানুষ অনেক বড় একটা দুশ্চিন্তার মধ্যে পড়ে যায়। অনেকে জানে না যে সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসা কিভাবে নিতে হয়। তাই আমরা আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনাকে জানাবো যে সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসা কিভাবে নিতে হয়। তাহলে দেরি না করে এখনই জেনে নেওয়া যাক।

পোস্টের সূচিপত্রঃ সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসা

ভূমিকা

প্রতিবছর প্রায় অনেক মানুষের মৃত্যু হয় এই সাপে কাটার কারণে। তবে শহরাঞ্চলের থেকে গ্রামাঞ্চলে সাপ বেশি দেখা যায়। এবং এই গ্রামাঞ্চলেই বেশি পরিমাণে মানুষ সাপে কাটার কারণে মারা যায়। সাপে কাটার জন্য মারা যাওয়ার কারণ হচ্ছে তারা সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসা কিভাবে নিতে হয় সেই বিষয় সম্পর্কে সঠিকভাবে জানে না এবং সঠিক সময় এবং সঠিক পদ্ধতিতে সেই চিকিৎসা না নেওয়ার ফলে সাপে কাটা রোগীকে মৃত্যুবরণ করতে হয়। 
তাই আপনাকে যদি কখনো সাপে কাটে এবং আপনি যাতে সেটির প্রাথমিক চিকিৎসা নিতে পারেন বা অন্য কাউকে যদি কখনো সাপে কাটে তাহলে আপনি যাতে সেই ব্যক্তির জন্য প্রাথমিক চিকিৎসা নিতে পারেন সেজন্য আমরা আজকে আপনাকে শেখাবো সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসা কিভাবে নিতে হয়। আজকের এ আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসা নেওয়ার বিষয় সম্পর্কে। তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক সাপ কেন মানুষকে কামড়ায়।

সাপ কেন মানুষকে কামড়ায়

সাপ মানুষকে কামড়ানোর বিভিন্ন ধরনের কারণ রয়েছে। তবে কখনো স্বাভাবিক অবস্থায় সাপ মানুষকে কামড় দেয় না। আপনি যদি কখনো সেই সাপকে রাগিয়ে তোলেন বা সেই সাপটি কোন সময় বিপদে পড়ে মানুষকে কামড়িয়ে থাকে। তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক যে সাপ কেন মানুষকে কামড়ায়।
  • অনেক সময় সাপ যখন তার নিজের জন্য খাবার খুঁজতে যায় এবং কোন কারণবশত কোন মানুষের সামনে পড়ে যায় তাহলে সাপ নিজেকে আত্মরক্ষা করার জন্য অনেক সময় মানুষকে কামড় দিয়ে থাকে।
  • আপনি যদি অন্ধকারের মধ্যে কোথাও যান এবং ভুলবশত যদি কোন সাপের গায়ের উপরে পা তুলে দেন তাহলে সাপ ক্ষিপ্ত হয়ে অনেক সময় কামড় দিয়ে দেয় বা নিজের আত্মরক্ষা করার জন্য অনেক সময় সাপ মানুষকে কামড় দিয়ে থাকে।
  • সাপ কোন সময় জলবদ্ধতা জায়গায় হতে চায় না। তারা সবসময় চায় শুকনো জায়গায় থাকতে। তাই তারা বর্ষাকালে মানুষের বাসা বাড়িতে গিয়ে ওঠে। এবং তারা যদি ভুলক্রমে মানুষের সামনে পড়ে যায় তাহলে অনেক সময় ভয় পেয়ে গিয়ে মানুষকে কামড় দিয়ে থাকে।
  • সাধারণত শীতকালে সাপ গর্ত থেকে বের হয়ে এসে রোদ পোহায়। এ সময় যদি কোন মানুষ তার রাস্তায় বাধা হয়ে দাঁড়ায় বা কোন মানুষকে যদি তার রাস্তায় দেখতে পায় তাহলে অনেক সময় ক্ষিপ্ত হয়ে মানুষকে কামড় দিয়ে দেয়।

সাপে কাটার লক্ষণ

বিষাক্ত সাপের সাধারণত দুইটি বিষাক্ত দাঁত থাকে। তারা যদি মানুষকে কামড় দেয় তাহলে তাদের দাঁতে থাকা বিষ মানুষের শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। তবে অনেক সময় বিষাক্ত সাপ বোঝাটা একটু কঠিন হয়ে পড়ে। তবে অনেক সময় নিচের লক্ষণগুলো দেখার মাধ্যমে আপনি বুঝতে পারবেন যে কাউকে বিষাক্ত সাপ কামড়েছে কিনা।
  • যেগুলো বিষাক্ত সাপ তাদের বড়শির মতো বাঁকা এবং বড় দুটি বিষাক্ত দাঁত রয়েছে। যদি সেই সাপগুলো কখনো মানুষকে কামড় দেয় তাহলে সেই কামড় দেওয়া স্থানে অনেক বড় ক্ষত হয়ে যায়।
  • যদি অনেক সময় লক্ষ্য করেন যে সাপে কামড়ানো স্থানে অনেকগুলো দাঁতের চিহ্ন বসে আছে এবং সেই কতগুলো খুব একটা গভীর না বা ক্ষত গুলোর দূরত্ব খুব একটা বেশি না তাহলে বুঝে নিতে হবে যে সে সাপটি বিষাক্ত নয়।
  • সাপে কামড় দেওয়ার পর যদি আপনি আপনার আশেপাশে বিষাক্ত সাপ দেখতে পান তাহলে বুঝে নিতে হবে যে আপনাকে কোন বিষাক্ত সাপ কেটেছে।
  • যদি কখনো সাপে কাটে এবং আপনার যদি মাথা ঘোরায় বা আপনার মধ্যে ঝিমুনি ভাব আসে বা আপনি যদি চোখে ঝাপসা দেখতে থাকেন এবং চোখের পাতা গুলো ফুলে ফুলে উঠে এবং বমি বমি ভাব হয় তাহলে বুঝে নিতে হবে যে আপনাকে বিষাক্ত সাপ কামড়েছে।

সাপে কাটলে করণীয় কি

সাপে কাটলে অনেকগুলো করণীয় বিষয় রয়েছে। তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক যে সাপে কাটলে করণীয় কি।
  • কোন ব্যক্তিকে যদি সাপে কামড় দেয় তাহলে সব সময় তাকে সাহস দিতে হবে। কারণ অনেক সময় সাপে কামড়ানো ব্যক্তিরা ভীত হয়ে মনে করেন যে তাদের মৃত্যু নিশ্চিত। এ কারণে তারা আরও বেশি অসুস্থ হয়ে পড়ে।
  • যদি কখনো মানুষকে সাপে কামড়ায় তাহলে সেই কামড়ানো স্থানে বেশি কাটা ছেঁড়া করা যাবে না।
  • যদি কখনো সাপ মানুষকে কামড়ায় তাহলে সে কামড়ানো স্থানে জীবানু নাশক দিয়ে ভালোভাবে ক্ষতস্থানটি মুছে ফেলতে হবে।
  • যদি কখনো মানুষকে সাপে কামড়ায় তাহলে সেই কামড়ানো স্থান থেকে উপরের দিকে একটা গামছা বা কাপড় দিয়ে ভালোভাবে বেঁধে দিতে হবে যাতে বিষ পুরো শরীরে না ছড়াতে পারে।
  • সাপে কাটলে যত দ্রুত সম্ভব ডাক্তারের কাছে নিয়ে যেতে হবে বা হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে।
  • সাপে কাটার রোগীকে কখনোই হাঁটাবেন না।
  • তবে আপনি যদি কোন সাপে কেটেছে বা সাপের প্রজাতি খুঁজে বের করতে পারেন তাহলে চিকিৎসা নেওয়ার ক্ষেত্রে খুবই বেশি ভালো হয়।

সাপে কাটলে কি করা উচিত নয়

আমাদের দেশে অনেক সময় একটি বিষয় লক্ষ্য করা যায় যে যখন কোন মানুষকে সাপে কামড়ায় বা সাপে ছোবল দেয় তখন তারা ওঝা ডেকে নিয়ে আসে চিকিৎসা করার জন্য। কিন্তু অনেক সময় এই ওঝার চিকিৎসার কারণে প্রচন্ড পরিমাণে রক্তপাত হয় বা পরবর্তীতে ধনুষ্টংকার বা অন্যান্য সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা থাকে। চলুন তাহলে জেনে নিন যে সাপে কাটলে কখনোই কি করা উচিত হবে না।
  • কোন ব্যক্তিকে যদি কখনো সাপে কাটে তাহলে কখনোই তার শরীরে একাধিক স্থানে কাপড় দিয়ে শক্ত করে গিট দিয়ে বেঁধে রাখবেন না।
  • যে স্থানে সাপে কামড় দিয়েছে বা ক্ষত স্থানে কখনোই ধারালো ছুরি দিয়ে কাটা ছেঁড়া বা রক্তক্ষরণ করবেন না।
  • আপনাকে যদি কখনো সাপে কাটে তাহলে কখনো বেশি নাড়াচাড়া করবেন না বা হাঁটাহাঁটি করবেন না।
  • সাপে কামড় দিলে কখনোই আক্রান্ত স্থানে খুব একটা বেশি টাইট করে বাধন দিবেন না কারণ বেশি টাইট করে বাধার ফলে পরবর্তীতে সেখানে প্রথম ধরতে পারে বা সেই স্থানটি পঙ্গু হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।
  • সাপে কাটা স্থানে কখনো কার্বলিক এসিড লাগাবেন না।
  • কখনো যদি সাপে কাটে তাহলে সেই ক্ষতস্থানে কখনো গাছ-গাছড়ার ওষুধ লাগাবেন না।
  • সাপে কাটার পরে কখনো সেই সাপটিকে ধরতে যাবেন না তবে আপনি যদি সাপটিকে চিনে রাখতে পারেন তবে চিকিৎসা নেওয়ার ক্ষেত্রে ভালো হয়।
  • এখনো যদি লক্ষ্য করেন যে সাপে কামড়ানোর ফলে কামড়ানোর স্থানে সাপের দাঁত ভেঙ্গে থেকে গেছে তাহলে সে দাগটি আস্তে করে বের করে আশেপাশে কোথাও ফেলবেন না চেষ্টা করবেন সেটা মাটিতে পুঁতে ফেলার জন্য।

সাপে কাটা রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসা

যদি কখনো সাপে কাটে তাহলে তৎক্ষণাৎ প্রাথমিক চিকিৎসা নেওয়ার চেষ্টা করতে হবে। তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক সাপে কাটা রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসা কিভাবে নিতে।
  • যদি কখনো সাপে কাটে তাহলে অনেক সময় মানুষ বেশি পরিমাণে ভয় পেয়ে হার্ট এটাক করা সম্ভব না থাকে। তাই সাপে কাটা রোগীকে এমন ভাবে সাহস বা মনোবল বাড়াতে হবে যাতে করে অতিরিক্ত পরিমাণে ভয় পেয়ে হার্ট এটাক না করে।
  • যদি কখনো সাপ হাতে কামড় দেয় তাহলে হাত খুব একটা বেশি নাড়াচাড়া করবেন না এবং হাঁটাচলা করা থেকে সম্পূর্ণ বিরত থাকবেন।
  • যদি কখনো মানুষকে সাপে কামড় দেয় তাহলে প্রথম কাজ হবে যে স্থানে কামড় দিয়েছে সেই স্থান থেকে একটু উপরের দিকে কোন একটি কাপড় বা দড়ি দিয়ে একটু শক্ত করে বেঁধে দেওয়া তবে খুব বেশি পরিমাণে শক্ত করে বাধা যাবে না। বাঁধনের নিচ দিয়ে যেন দুই আঙ্গুল যাওয়ার মত ফাঁকা থাকে এমন ভাবে বাধতে হবে। আপনি যদি খুব বেশি টাইট করে বাঁধেন তাহলে পরবর্তীতে সেখানে পচন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
  • ভালোভাবে আক্রান্ত স্থানে বাধার পরে সেই আক্রান্ত স্থানটিকে বা ক্ষতস্থানটিকে ভালোভাবে সাবান পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে।
  • সাপে কাটা রোগীকে হাটাতে হাটাতে ডাক্তারের কাছে বা হাসপাতালে না নিয়ে গিয়ে কোন একটি গাড়িতে করে বা অ্যাম্বুলেন্সে করে ডাক্তারের কাছে বা হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে।
  • যে ব্যক্তিকে সাপে কাটবে তাকে জিজ্ঞাসা করতে হবে যে তাকে কোন সাপটিতে কেটেছে। যদি সে ব্যক্তি সঠিক মত বলতে পারে যে কোন সাপটি তাকে কেটেছে তাহলে চিকিৎসা নেবার ক্ষেত্রে খুবই ভালো হয়।

শেষ কথা

সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসা কিভাবে নিতে হয় আপনি তো তার সম্পূর্ণটুকুই ভালোভাবে জানলেন। আশা করা যায় যে পরবর্তী সময় যদি আপনাকে কিংবা আপনার দেখা কোন ব্যক্তিকে সাপে কামড়ায় তাহলে আপনি সেই ব্যক্তির প্রাথমিক চিকিৎসা নিতে পারবেন। 

আজকের আর্টিকেলটি যদি আপনার কাছে ভালো লাগে তাহলে এই আর্টিকেলটি অন্যদের কাছে শেয়ার করে তাদেরকে পড়ার সুযোগ করে দিন যাতে করে তারাও জানতে পারে সাপে কাটা রোগীর চিকিৎসা কিভাবে নিতে হয়। সম্পূর্ণ পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url