দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার নিয়ম

বাংলাদেশ থেকে বর্তমানে প্রচুর পরিমান মানুষ দক্ষিণ কোরিয়ায় যাচ্ছে। এজন্য অনেকেরই একটি বিষয়ে আগ্রহ থাকে যে কিভাবে দক্ষিণ কোরিয়ায় যাওয়া যাবে বা দক্ষিণ কোরিয়ায় যাওয়ার নিয়ম। আপনি হয়তোবা দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে ইন্টারনেটে প্রচুর ঘাঁটাঘাঁটি করেছেন। 
দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার নিয়ম
কিন্তু কোথাও সঠিক তথ্য না পাওয়ার কারণে আপনি এখনো জানতে পারেননি দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে। তাই আমরা আজকের এই আর্টিকেলে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। আজকের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণরূপে পড়ার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন যে কিভাবে আপনি দক্ষিণ কোরিয়া যেতে পারবেন। তাহলে আর দেরি কেন চলুন এখনই জেনে নেওয়া যাক দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে।

পোস্টের সূচিপত্রঃ দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার নিয়ম

ভূমিকা

বর্তমানে প্রচুর পরিমাণে মানুষ কাজের জন্য বাংলাদেশ থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় যাচ্ছে। বলতে গেলে বেতনের দিক থেকে এ দক্ষিণ কোরিয়া দেশটি অনেকটাই এগিয়ে আছে। যার কারণে অনেকেরই আগ্রহ থাকে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য। এছাড়াও এই দক্ষিণ করে গেলে অন্যান্য দেশের চেয়েও ভালো পরিস্থিতিতে থাকা যায়। 
আপনি যদি অভিবাসী কর্মীর জীবনমানের দিক দিয়ে নির্বাচন করেন এবং বেতনের দিক চিন্তা করে কোন একটি দেশ নির্বাচন করেন তাহলে আমার মনে হয় দক্ষিণ কোরিয়া হচ্ছে বর্তমানে এক নম্বরে আছে। আপনি এই দেশটিতে ফুল টাইম হিসেবে বিভিন্ন ধরনের কাজ করতে পারবেন। দক্ষিণ কোরিয়ায় আপনি কাজের ক্ষেত্রে পেয়ে যাবেন বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধা। 

এছাড়াও আপনাকে কাজ করতে গিয়ে কোন ধরনের সমস্যার মধ্যে পড়তে হবে না তার কারণ হলো আপনি যে কোম্পানিতে কাজে যাবেন সেই কোম্পানি আগে থেকে আপনাকে ট্রেনিং দিয়ে বাংলাদেশ থেকে নিয়ে যাবে। এজন্য সবকিছু কাজ আপনি আগে থেকেই বুঝতে পারবেন। তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার অন্যান্য নিয়ম সম্পর্কে।

বাংলাদেশ থেকে দক্ষিণ কোরিয়া যেতে কি কি প্রয়োজন

আপনি যদি চান যে আপনি বাংলাদেশ থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় যাবেন তাহলে আপনার প্রয়োজন হবে কিছু কাগজপত্রের। তবে এমন কিছু কাগজপত্র রয়েছে যেগুলো ছাড়া আপনি কখনোই দক্ষিণ কোরিয়া যেতে পারবেন না সেগুলো নিয়ে আজকে আমরা আলোচনা করব। আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে দক্ষিণ করে যেতে চান তাহলে নিচের দেওয়া সকল কাগজপত্র আপনার অবশ্যই থাকতে হবে। তা না হলে আপনি কখনোই দক্ষিণ কোরিয়ায় যেতে পারবেন না। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক বাংলাদেশ থেকে দক্ষিণ কোরিয়া যেতে কি কি প্রয়োজন।
  • প্রথমত আপনার একটি পাসপোর্ট থাকতে হবে।
  • দক্ষিণ কোরিয়ায় যাওয়ার জন্য আপনার দক্ষিণ কোরিয়ার একটি ভিসা প্রয়োজন হবে।
  • এছাড়াও আপনার প্রয়োজন হবে একটি মেডিকেল সার্টিফিকেটের। কারণ এই মেডিকেল সার্টিফিকেটের মাধ্যমে আপনাকে যাচাই করা হবে যে আপনি দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য ফিট আছেন কি না।
  • আপনার আরও একটি প্রয়োজনীয় কাগজের প্রয়োজন হবে আর সেটি হচ্ছে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট। যদি আপনার নামে পুলিশ রেকর্ডে কোন কেস না থাকে তাহলে আপনি খুব সহজেই পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পেয়ে যাবেন।
  • এছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে এবং পরীক্ষা দেওয়ার মাধ্যমে আপনাকে দক্ষিণ করে যেতে হবে।
  • দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য আপনার প্রয়োজন হবে একটি ট্রেনিং সার্টিফিকেট এর। এই ট্রেনিং সার্টিফিকেট এর মাধ্যমে আপনার কাজের প্রতি অভিজ্ঞতা যাচাই করা হবে।

দক্ষিণ কোরিয়া যেতে কত টাকা লাগে

অনেকের মনের মধ্যে একটি প্রশ্ন থাকে যে দক্ষিণ কোরিয়া যেতে কত টাকা লাগে। তাই আমরা আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনাকে আপনার প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দিব। সচরাচর দক্ষিণ কোরিয়া যেতে আপনার প্রয়োজন হবে ৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার মত। তবে সেখানে গিয়ে আট ঘন্টা কাজের বিনিময়ে আপনাকে যে পরিমাণ টাকা বেতন দেওয়া হবে সেটি শুনে অনেকেই দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য আগ্রহী হয়ে ওঠে। 

২০০৮ সাল থেকে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় দক্ষ কর্মী পাঠানো। তবে আপনি যদি দক্ষিণ কোরিয়ায় সরকারি ভাবে যেতে চান তাহলে আপনাকে তেমন বেশি টাকা খরচ করতে হবে না। তবে আপনি যদি বেসরকারি ভাবে যেতে চান বা কোন দালালের পাল্লায় পড়েন তাহলে আপনাকে খরচ করতে হবে প্রচুর পরিমাণে টাকা। তবে আমার মনে হয় বেসরকারিভাবে যাওয়ার ঝামেলায় না পড়ে সরকারিভাবে যাওয়াটাই বেশি ভালো।

সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার উপায়

আপনি যদি সরকারিভাবে দক্ষিণ করে দিতে চান তাহলে পুরো বিষয়টি ভালোভাবে পড়ুন। সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য সাধারণত এপ্রিল অথবা মে মাসের দিকে বোয়েসেল কর্তৃক লটারি ছাড়া হয়। এবার জেনে নিন যে সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য আপনাকে কোন কোন ধাপ অনুসরণ করতে হবে।
  • দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য যখন বোয়েসেল কর্তৃক লটারি ছাড়া হবে তখন সেই লটারির জন্য নিবন্ধন করতে হবে।
  • এরপর যদি লটারিতে আপনার নাম আসে তাহলে আপনাকে ভাষাগত দক্ষতার পরীক্ষা দিতে হবে।
  • ভাষাগত পরীক্ষা দেওয়া শেষ হয়ে গেলে আপনাকে দিতে হবে একটি স্কিল টেস্ট পরীক্ষা।
  • এরপর আপনি যদি সকল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন তাহলে বোয়েসেল এর কাছে আপনাকে দিতে হবে আপনার মেডিকেল সার্টিফিকেট এবং একটি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট।
  • এরপর বোয়েসেল কর্তৃক যেসব প্রার্থীরা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে তাদের কার্ট মার্ক ধরে রোস্টার করা হবে।
  • এরপর রোস্টারে যদি আপনার নাম আসে তাহলে ভিসা ফর্ম সহ বিভিন্ন ডকুমেন্টস ও বোয়েসেলের ফি আপনাকে জমা দিতে হবে।
  • এরপর আপনার সিভিটি যদি এইচআরডি কোরিয়া কর্তৃক সিলেক্ট করা হয় তাহলে বোয়েসেলের আন্ডারে আপনাকে দুই সপ্তাহের ট্রেনিং নিতে হবে।
  • এরপর সকল কিছু যদি আপনি ঠিকঠাক মত করতে পারেন তাহলে একটি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আপনাকে পাঠানো হবে দক্ষিণ কোরিয়ায় এবং সেটি সরকারি ভাবে।
আপনি যদি উপরের দেওয়া ধাপগুলো ভালোভাবে অনুসরণ করতে পারেন তাহলে আপনি খুব সহজেই সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া যেতে পারবেন।

সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া গেলে কি কি সুবিধা পাওয়া যায়

সরকারিভাবে আপনি যদি দক্ষিণ কোরিয়া যান তাহলে আপনি পাবেন বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধা। তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক যে আপনি যদি সরকারি ভাবে দক্ষিণ কোরিয়া যেতে পারেন তাহলে আপনি যেসব সুযোগ-সুবিধা পাবেন।
  • আপনি যদি সরকারি ভাবে দক্ষিণ কোরিয়া যান তাহলে আপনি খুবই স্বল্প খরচের মধ্যেই দক্ষিণ কোরিয়া চলে যেতে পারবেন।
  • আপনি সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া গেলে সেখানে উচ্চ বেতন ভাতা পাবেন।
  • আপনি যদি সরকারি ভাবে কোরিয়া যান তাহলে সেখানে আপনি পাবেন আপনার কাজের নিরাপত্তা।
  • সরকারিভাবে পড়িয়া গেলে আপনি সকল ধরনের প্রতারণার হাত থেকে বেঁচে যাবেন।
  • আপনি যদি সরকারিভাবে কোরিয়া যান তাহলে আপনি আপনার যে কোন সমস্যায় সরকারি অধিদপ্তর ও কোরিয়ায় বাংলাদেশি কনসুলেটকে আপনার পাশে পাবেন।
আপনি উপরের সবগুলো সুবিধা পাবেন যদি আপনি সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া যেতে পারেন।

লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার উপায়

আমরা প্রত্যেকে জানি যে সরকারিভাবে লটারির মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়ায় যাওয়া যায়। কিন্তু অনেকের মনে একটু প্রশ্ন থেকে যায় যে কিভাবে লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়া যায়। দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার ক্ষেত্রে প্রত্যেকটি মানুষের সবচেয়ে বেশি আগ্রহ থাকার কারণ হলো সেখানে গিয়ে আপনি পাবেন ভালো একটি কাজের পরিবেশ। এবং সেখানে আপনি পাবেন উচ্চ বেতনের কাজ এবং আপনার জীবনের নিরাপত্তা। 

আপনি যদি লটারি ছাড়াও দক্ষিণ করে যেতে চান তাহলে সরকারিভাবে আরও একটি সুযোগ রয়েছে। আপনি যদি লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যেতে চান তাহলে আপনাকে সম্পূর্ণরূপে দক্ষিণ কোরিয়ার ভাষা জানতে হবে। আপনি যদি দক্ষিণ কোরিয়ার ভাষা পরীক্ষায় ভালোভাবে চিহ্ন হতে পারেন তাহলে আপনি লটারি ছাড়াই দক্ষিণ কোরিয়া যেতে পারবেন।

লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যেতে কি কি লাগে

এখন আমরা যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করব সেটি হলো লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যেতে কি কি লাগে। লটারি ছাড়া আপনি যদি দক্ষিণ করে যেতে চান তাহলে সর্বপ্রথম যে জিনিসটি প্রয়োজন হবে সেটি হল দক্ষিণ কোরিয়ার ভাষা জানা। আপনাকে দক্ষিণ কোরিয়ার ভাষা ভালোভাবে জানতে হবে এবং ভালোভাবে বুঝতে হবে। 

এছাড়াও দক্ষিণ কোরিয়ার ভাষা জানার পাশাপাশি আপনার থাকতে হবে এসএসসি সমমান পরীক্ষায় পাস সার্টিফিকেট। এছাড়াও আপনি যদি লটারি ছাড়া দক্ষিণ করে যেতে চান তাহলে আপনাকে মেডিকেল ফিট হতে হবে এবং স্কিল টেস্টে উত্তীর্ণ হতে হবে। লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য আপনাকে বোয়েসেলের কাছে ভাষা পারদর্শী হিসেবে আবেদন করতে হবে। 

তবে এ আবেদন করার পূর্বে প্রথম শর্ত হলো আপনাকে দক্ষিণ কোরিয়ার ভাষা ভালোভাবে জানতে হবে। লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার নিয়মটা কিছুটা লটারির মতনই। লটারি ছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার জন্য প্রথমে আপনাকে দক্ষিণ কোরিয়ার ভাষা ভালোভাবে শিখতে হবে এবং এরপরে ভাষা পারদর্শী হিসেবে বোয়েসেলের কাছে একটি আবেদন করতে হবে এবং আবেদনের ফি জমা দিতে হবে ও প্রবেশপত্র সংগ্রহ করতে হবে। 

এরপর আপনাকে ভাষা পারদর্শী পরীক্ষা দিতে হবে এবং এরপরে স্কিল টেস্ট পরীক্ষা দিতে হবে। সবকিছু পরীক্ষা হওয়ার পরে আপনি যদি রোস্টার ভুক্ত হন তাহলে আপনাকে ভিসার জন্য ফরম জমা দিতে হবে। আপনি যে কোম্পানিতে যাবেন সে কোম্পানির মালিক কর্তৃক যদি আপনি সিলেক্ট হন তাহলে বোয়েসেলের মাধ্যমে আপনাকে ট্রেনিং দেওয়া হবে। এবং এ ট্রেনিং ভালোভাবে সম্পূর্ণ হয়ে গেলে আপনাকে দক্ষিণ কোরিয়ায় পাঠানো হবে।

আমাদের শেষ কথা

কিভাবে সরকারি ভাবে লটারির মাধ্যমে এবং লটারি ছাড়া আপনি কিভাবে দক্ষিণ কোরিয়ায় যেতে পারবেন সে বিষয়ে উপরে ভালোভাবে আলোচনা করা হয়েছে। আপনি যদি উপরের নিয়ম গুলো ভালোভাবে পার করতে পারেন তাহলে আপনিও খুব সহজে সরকারি ভাবে দক্ষিণ কোরিয়ায় যেতে পারবেন। আর আপনি যদি সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া যান তাহলে বিভিন্ন ধরনের সুযোগ সুবিধা পেয়ে যাবেন। 

আর আমি মনে করি যে দক্ষিণ কোরিয়ায় যাওয়ার জন্য আপনাকে কোন ধরনের দালালের পাল্লায় পড়তে হবে না। কারণ দক্ষিণ করে যাওয়াটা সম্পূর্ণ সরকারিভাবে। তাই এখানে দালালের দ্বারা কোন কিছু সম্ভব নয়। আজকের এই আর্টিকেলটা যদি আপনার কাছে ভালো লেগে থাকে তাহলে আপনার যেসব বন্ধু বা আত্মীয়-স্বজনরা সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া যেতে চায় তাদের কাছে শেয়ার করুন যাতে তারাও কোন ধরনের দালালের পাল্লায় না পড়ে সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়ায় যেতে পারে। 

এছাড়াও দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়া সম্পর্কে আপনার যদি অন্য কোন ধরনের প্রশ্ন থাকে তাহলে সেটা আমাদেরকে কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন আমরা সেটির উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব। ভালো থাকবেন এবং সুস্থ থাকবেন আপনার যাত্রা শুভ হোক।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url