দাঁত ব্যথা হলে করণীয় কি

দাঁতের ব্যথা যে কতটা যন্ত্রণাদায়ক সেটি একমাত্র তিনি বুঝতে পারেন যিনি এ ধরনের সমস্যায় ভুগেন। দাঁতের ব্যথা শুরু হলে যেন আর কোন কিছু ভালো লাগে না। এবং একজন মানুষের যখন দাঁতের ব্যথা শুরু হয়ে যায় তখন সে মানুষটি অস্থির হয়ে পড়ে এই দাঁতের ব্যথা ভালো করার জন্য। কিন্তু দাঁত ব্যথা হলে করণীয় কি এই বিষয়ে সঠিক ধারণা না থাকার জন্য অনেক মানুষই নিয়মিতই এই ধরনের সমস্যায় ভোগেন। 
দাঁত ব্যথা হলে করণীয় কি
তাই এই দাঁত ব্যথা নিয়ে আর কোন ধরনের চিন্তা করতে হবে না কারণ আপনি যদি আজকের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণভাবে পড়েন তাহলে বেশ কিছু উপায় মেনে চলার মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার দাঁতের ব্যথা দূর করতে পারবেন। আপনি যদি জানতে চান যে দাঁত ব্যথা হলে করণীয় কি তাহলে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন। আর দেরি না করে চলুন শুরু করা যাক।

পোস্টের সূচিপত্রঃ দাঁত ব্যথা হলে করণীয় কি

ভূমিকা

দাঁতের ব্যথা এমন এক ধরনের সমস্যা যেটিতে বর্তমানে অনেক মানুষই আক্রান্ত হয়ে থাকেন। দাঁতের ব্যথা শুরু হলে যেন আর কোন কিছুই ভালো লাগেনা। একবার যদি দাঁতের ব্যথা শুরু হয়ে যায় তাহলে সেটিকে থামানো অনেকটাই কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে। দাঁতের ব্যথা শুরু হলে যখন কোন মানুষ ভালো কথা বলে তখন তার কথাও যেন মনে হয় খারাপ। দাঁত ব্যথা শুরু হলে মানুষ বিভিন্ন ধরনের চিন্তার মধ্যে পড়ে যায়। 
তাই আপনি যাতে দাঁতের ব্যথা শুরু হলে এ ধরনের সমস্যার মধ্যে না পড়েন সেজন্য আমরা দাঁত ব্যথা হলে করণীয় কি এই সম্পর্কে একটি সম্পূর্ণ আর্টিকেল লিখছি। আশা করা যায় আপনি যদি এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণভাবে পড়েন তাহলে আপনি খুবই ভালোভাবে বুঝতে পারবেন যে দাঁত ব্যথা হলে আপনার কি করা উচিত। তাহলে আর কথা বাড়িয়ে সময় নষ্ট না করে চলুন শুরু করা যাক।

দাঁত ব্যথার কারণ

বিভিন্ন কারণে দাঁতের ব্যথা হয়ে থাকে। চলুন তাহলে এখন জেনে নেওয়া যাক দাঁত ব্যথার কারণ গুলো সম্পর্কে।
  • আপনি যদি প্রতিনিয়তই খুবই জোরে এবং দীর্ঘক্ষণ ধরে দাঁত মাজতে থাকেন তাহলে আপনার দাঁতে ব্যথা হতে পারে। তাই দাঁতের ব্যথা দূর করার জন্য কখনো উচিত হবে না অতিরিক্ত জোরে এবং দীর্ঘক্ষণ ধরে দাঁত মাজা।
  • দাঁতের ব্যথা অনেক সময় কোন দুর্ঘটনার কারণেও হয়ে থাকে।
  • ক্যালসিয়ামের অভাবে অনেক সময় দাঁতে ব্যথা হতে দেখা যায়।
  • আপনি যদি নিয়মিত ব্রাশ না করেন বা নিয়মিত দাঁত গুলোকে পরিষ্কার না রাখেন তাহলে আপনার দাঁতে ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ হতে পারে। এবং এর ফলে শুরু হয়ে যাবে আপনার দাঁতের ব্যথা।
  • আপনার দাঁতে যদি ফাঁক থাকে তাহলে বিভিন্ন ধরনের খাবার খাওয়ার মাধ্যমে সে দাঁতের ফাক গুলোতে খাবার আটকে যায়। এবং এই খাবার আটকে যাওয়ার কারণে দাঁতের ব্যথা শুরু হয়।
  • মানুষের যখন আক্কেল দাঁত ওঠে তখন দাঁতের ব্যথা শুরু হয়।
  • কোন কারনে যদি আপনার দাঁতে ক্ষয় হয় তাহলে এই দাঁতের ব্যথা শুরু হয়ে যেতে পারে।
  • মাড়িতে ইনফেকশন হয়ে গেলে বা মাড়িতে ফোড়া হওয়ার কারণে অনেক সময় দাঁতের ব্যথা হতে দেখা যায়।

দাঁতের ব্যথায় কেমন লাগে

দাঁতের ব্যথায় কেমন লাগে সেটি শুধুমাত্র সেই ব্যক্তি জানে যিনি এই ধরনের সমস্যায় ভুগেন। আপনার যখন দাঁতের ব্যথা শুরু হয়ে যাবে তখন দাঁতের এবং মাড়ির আশেপাশে প্রচন্ড পরিমাণে ব্যথা হবে। অনেক সময় দাঁতের ব্যথা তীব্র পরিমাণে হওয়ার কারণে জ্বর চলে আসে। যখন দাঁতের ব্যথা শুরু হয়ে যায় তখন যদি আপনি দাঁত বা মাটিতে স্পর্শ করেন বা খাবার চিবাতে থাকেন তখন প্রচন্ড পরিমাণে দাঁতে ব্যথা হয়। 
০০৩
দাঁতের ব্যথা শুরু হলে মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়ার মাধ্যমে দাঁতের ব্যথা আরো বেড়ে যায়। যখন দাঁতের ব্যথা শুরু হয়ে যায় তখন কোন খাবারের আর স্বাদ পাওয়া যায় না। দাঁতের ব্যথা শুরু হলে চোয়ালে প্রচন্ড পরিমাণে ব্যথা হয়। দাঁতের ব্যথা শুরু হলে মুখ থেকে বাজে দুর্গন্ধ বের হয়। অনেক সময় এমনটি দেখা যায় যে দাঁতে ব্যথা হওয়ার কারণে বাড়িতে লালচে বা ফোলা ভাব হয়ে যায়। অনেক সময় দাঁতে প্রচন্ড পরিমাণে ব্যথা হওয়ার কারণে পুঁজ বা সাদা তরল জাতীয় পদার্থ বের হতে দেখা যায়।

দাঁত ব্যথা হলে করণীয়

বিভিন্ন ধরনের ঘরোয়া উপায় রয়েছে যেগুলো মেনে চলার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই আপনার দাঁতের ব্যথাকে দূর করে ফেলতে পারবেন। চলো তাহলে এখন জেনে নেওয়া যায় যে দাঁত ব্যথা হলে করণীয় কি।
  • লবঙ্গ দাঁতের ব্যথা দূর করার জন্য খুবই ভালো কাজ করে থাকে। লবঙ্গ দাঁতের ইনফেকশনের বিরুদ্ধে লড়তে পারে। আপনার যদি দাঁতের ব্যথা হয়ে থাকে তাহলে একটি লবঙ্গ ভালোভাবে পিষে নিয়ে সেটিতে দুই ফোটা পরিমাণ অলিভ অয়েল তেল নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে ফেলুন। এরপর এই মিশ্রণটি আপনার দাঁতের যে স্থানে ব্যাখ্যা হচ্ছে সেই স্থানে লাগিয়ে দিন। তাহলে দেখবেন যে কিছুক্ষণের মধ্যেই আপনার দাঁতের ব্যথা কমে গেছে।
  • লবণ এবং গোলমরিচের গুঁড়া ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই আপনার দাঁতের ব্যথা দূর করে ফেলতে পারবেন। লবণ এবং গোলমরিচের গুড়া দিয়ে দাঁতের ব্যথা দূর করার জন্য সামান্য পরিমাণ লবণ নিয়ে সেটির সাথে কিছু পরিমাণ গোলমরিচের গুড়া চেয়ে নিয়ে আপনার ব্যথাযুক্ত স্থানে লাগিয়ে দিন। এবং কিছুক্ষণ পর খেয়াল করবেন যে আপনার দাঁতের ব্যথা দূর হয়ে গিয়েছে।
  • আপনার যদি দাঁতের ব্যথা শুরু হয়ে যায় তাহলে সামান্য পরিমাণ লবণ নিয়ে নিন এবং একটি পাত্রে সামান্য পরিমাণ পানি নিয়ে সেটিতে লবণ মিশিয়ে হালকা কুসুম গরম করে নিন। এবং এরপর গড়গড়া করতে থাকুন। এভাবে করতে থাকলে আপনার দাঁতের ব্যথা দূর হয়ে যাবে।
  • আপনার যদি দাঁতের ব্যথা শুরু হয়ে যায় এবং আপনি কোন উপায় খুঁজে না পান তাহলে রসুনের একটি কুয়া নিয়ে চিবিয়ে খেয়ে ফেলুন। এরপর দেখবেন যে আপনার দাঁতের ব্যথা জাদুর মত দূর হয়ে গিয়েছে।
  • অনেক সময় একটি বিষয়ের লক্ষ্য করবেন যে গ্রাম এলাকাগুলোতে কারো যদি দাঁতের ব্যথা হয়ে থাকে তাহলে পেয়ারার পাতা চিপায়। কারণ পেয়ারা পাতার রস দাঁতের ব্যথা দূর করার জন্য খুবই ভালো কাজ করে থাকে।
  • নিম পাতা দিয়ে আপনি আপনার দাঁতের ব্যাথা খুব সহজে দূর করে ফেলতে পারবেন। নিম পাতার মাধ্যমে দাঁতের ব্যথা দূর করার জন্য একটি পাত্রে সামান্য পরিমাণ পানি নিয়ে সেটিতে নিমপাতা দিয়ে ভালো করে ফুটিয়ে নিন এবং সেই পানিগুলো ছেঁকে নিয়ে সে পানিতে এক চা চামচ পরিমাণ লবণ মিশিয়ে নিন। এরপর সে পানি দিয়ে কুলকুচি করতে থাকুন। এভাবে করতে থাকলে খেয়াল করবেন যে আপনার দাঁতের ব্যথা দূর হয়ে গিয়েছে।

পোকা দাঁতের ব্যথা কমানোর উপায়

পোকা দাঁতের ব্যথা কমানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের ঘরোয়া উপায় রয়েছে। আপনি যদি নিয়মিত সেই উপায় গুলো মেনে চলেন তাহলে খুব সহজেই আপনার পোকা দাঁতের ব্যথা দূর করে ফেলতে পারবেন। তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক খোকা দাঁতের ব্যথা দূর করার উপায় গুলো সম্পর্কে।
  • পোকা দাঁতের ব্যথা দূর করার জন্য প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে এবং সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরে ভালো হবে দাঁত ব্রাশ করতে হবে।
  • পোকা দাঁতের ব্যথা যদি আপনার হয়ে থাকে তাহলে মিষ্টি জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলুন। এছাড়াও আপনি যদি মিষ্টি জাতীয় খাবার খান তাহলে খাওয়ার পরে সেটি ভালোভাবে পরিষ্কার করে ফেলুন।
  • পোকা দাঁতের ব্যথা দূর করার জন্য পানে জর্দা খাওয়া থেকে এড়িয়ে চলুন।
  • পোকা দাঁতের ব্যথা দূর করার জন্য ডাক্তার যেসব পরামর্শ দিবে সে পরামর্শ গুলো ভালোভাবে মেনে চলতে হবে।

দাঁত ব্যথার ট্যাবলেট এর নাম

ফার্মেসিতে গেলে বিভিন্ন ধরনের দাঁত ব্যথার ট্যাবলেট পাওয়া যায়। চলুন তাহলে সেসব ট্যাবলেট এর মধ্যে কিছু ট্যাবলেটের নাম জেনে নেওয়া যাক।
  • Fenamic Tablet
  • Napa One Tablet
  • Etoricoxib Tablet
  • Tory 60 Tablet
  • Exilok 20 Tablet
  • Maxacil 500 Tablet
  • Amodis 400 Tablet

শেষ কথা

আশা করা যায় যে আপনি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি ভালোভাবে এবং মনোযোগ সহকারে পড়েছেন। আপনি যদি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি ভালোভাবে এবং মনোযোগ সহকারে পড়ে থাকেন তাহলে নিশ্চয়ই এখন বুঝতে পেরেছেন যে আপনি কিভাবে আপনার দাঁতের ব্যথা খুব সহজে দূর করতে পারবেন। আশা করা যায় যে আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার কাছে ভালো লেগেছে। 

আজকের এই আর্টিকেলটি যদি আপনার কাছে ভালো লেগে থাকে তাহলে এটি আপনার বন্ধুদের কাছে শেয়ার করে দিন যাতে তারাও দাঁতের ব্যথার সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারে। সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ার জন্য এবং এতক্ষণ আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url