মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়

সম্মানিত পাঠক, বর্তমানে এখন অনেকেই চাই যে অন্য কারো থেকে ওয়েবসাইট তৈরি করে না নিয়ে নিজে নিজে একটু ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য। কিন্তু ওয়েবসাইট তৈরি করার সঠিক উপায় না জানার কারণে তারা একটি পরিপূর্ণ ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারে না। এজন্য আজকে আমরা আপনাকে বলবো মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। 
মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়
মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় এ বিষয়ে জানার পরে আপনিও পারবেন আপনার হাতে থাকা মোবাইল ফোনটি দিয়ে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলতে। তাহলে অযথা সময় নষ্ট না করে আগে জানতে হবে মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। চলুন তাহলে জেনে না যখন মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়।

পোস্টের সূচিপত্রঃ মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়

ভূমিকা

আপনি হয়তোবা ঘরে বসেই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার চিন্তা করছেন। কিন্তু আপনার কাছে কোন ধরনের কম্পিউটার না থাকার কারণে আপনি একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারছেন না। কিন্তু আপনি হয়তোবা জানেন না যে এখন মোবাইল ফোনটি দিয়ে আপনি খুব সহজেই ঘরে বসে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলতে পারবেন। এজন্য আমরা আজকে আপনাদেরকে জানাবো মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। 
আপনি যদি আজকের এই আর্টিকেল মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় মনোযোগ সহকারে সম্পূর্ণ পড়েন তাহলে খুব সহজেই নিজেও ঘরে বসে আপনার হাতে থাকা মোবাইল ফোনটি দিয়ে খুব সহজেই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলতে পারবেন। এজন্য আপনাকে জানতে হবে মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। 

আপনি যদি জানতে চান মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় তাহলে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি আপনাকে ভালোভাবে পড়তে হবে। চলুন তাহলে এখন জেনে নেওয়া যাক মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় সে সম্পর্কে। মোবাইল দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার আগে চলুন জেনে নেওয়া যাক ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি লাগে।

ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি লাগে

মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় এই সম্পর্কে জানার আগে আপনার জানা প্রয়োজন ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি লাগে বা কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজন হয় একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে। আপনি যদি জানতে পারেন যে ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি লাগে তাহলে ওয়েবসাইট তৈরি করতে গিয়ে আপনাকে আর কোন ধরনের সমস্যার মধ্যে পড়তে হবে না। তাহলে আর দেরি না করে ওয়েবসাইট তৈরি করার আগে চলুন জেনে নেওয়া যাক ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি লাগে। 
একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য সর্বপ্রথম আপনার যে জিনিসটি প্রয়োজন হবে সেটি হল একটি ডোমেইন এবং হোস্টিং। আপনার কাছে যদি একটি ডোমেইন থাকে এবং একটি হোস্টিং থাকে তাহলে খুব সহজে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলতে পারবেন। ডোমেইন কেনার আগে আপনি যে কাজের জন্য ওয়েবসাইটটি তৈরি করবেন বা আপনার যে বিজনেস এর জন্য ওয়েবসাইটটি তৈরি করবেন তার জন্য একটি সুন্দর নাম নির্বাচন করবেন। 

এতে করে আপনি আপনার নির্বাচিত নামটি আপনার ডোমেইন এর নাম হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন যদি সেই নামে আগে থেকে কেউ ডোমেইন কিনে না রাখে তাহলে। বিভিন্ন ধরনের ডোমেইন এর মূল্য বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। তবে আপনি যদি একটি সুন্দর এবং ভালো ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান তাহলে আপনার উচিত হবে একটু বেশি মূল্য দিয়ে ভালো কোন ডোমেইন কিনা যেটিতে মানুষ বেশি পরিমাণে সার্চ করার সময় ব্যবহার করে থাকে। আর আপনি যদি ব্লগার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান তাহলে আপনার কোন প্রকার হোস্টিং এর প্রয়োজন হবে না। 

কারণ ব্লগার ওয়েবসাইট থেকে আপনি ফ্রিতে পেয়ে যাবেন ১৫ জিবি পর্যন্ত হোস্টিং ফ্রি। তাহলে আপনি নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছেন যে ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি লাগে। ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি লাগে যদি আপনি ভালোভাবে জানতে পারেন তাহলে আপনি খুব সহজেই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। এছাড়াও ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি লাগে এ বিষয়ে জানার পরে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে গিয়ে আপনাকে আর কোন ধরনের সমস্যার মধ্যে পড়তে হবে না। ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি লাগে এ বিষয়ে যদি আপনি সম্পূর্ণ জেনে যান তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক ওয়েবসাইট তৈরীর খরচ কত।

ওয়েবসাইট তৈরির খরচ

মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় এ বিষয়ে জানার আগে আপনার জানা উচিত ওয়েবসাইট তৈরির খরচ কত বা ওয়েবসাইট তৈরির খরচ কি পরিমানের হয়ে থাকে। বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করতে বিভিন্ন রকম খরচ হয়ে থাকে। মূলত ওয়েবসাইট তৈরি করতে না খরচটি হয়ে থাকে ডোমেইন এবং হোস্টিং কেনার জন্য। এখন আপনি কি ধরনের ডোমেইন-হোস্টিং কিনবেন এবং কেমন ওয়েবসাইট বানাবেন সেটির উপর নির্ভর করে আপনার খরচ হবে। 

আপনি যদি নরমাল কোন ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান বা সাধারণ কোন ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান তাহলে আপনার খরচ হতে পারে ১৫০০ টাকার মতন। আর আপনি যদি চান যে একটি ভালো ওয়েবসাইট তৈরি করতে অর্থাৎ একটু ভালো মানের ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনতে তাহলে আপনার খরচ হতে পারে প্রায় ৯০০০ টাকার মতন। আর আপনি যদি এর থেকেও ভালো মানের কোন ডোমেইন বা হোস্টিং কিনতে চান অর্থাৎ সবচেয়ে ভালো কোয়ালিটির কোন ডোমেইন বা হোস্টিং কিনতে চান তাহলে আপনার খরচ হবে প্রায় ১৫ হাজার টাকার মতন। 
তবে এক্ষেত্রে আপনাকে নিজে নিজেই ডোমেইন-হোস্টিং সেটাপ করে ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে বা অন্য কোন পদ্ধতিতে ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে। আর আপনি যদি চান যে কোন ওয়েব ডেভেলপার দিয়ে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে নিবেন তাহলে সে ক্ষেত্রে সেই ওয়েব ডেভেলপারের আলাদাভাবে পারিশ্রমিক দিয়ে তার থেকে ওয়েবসাইট তৈরি করে নিতে হবে। এক্ষেত্রে কোন ওয়েব ডেভেলপার কেমন পরিমাণ টাকা নিবে সেটি নির্দিষ্টভাবে বলা যাবে না। 

কারণ একেক ডেভলপার একেক ধরনের পারিশ্রমিক দাবি করে। আবার কিছু কিছু এমন ওয়েবসাইট আছে যে একদম হাই কোয়ালিটির সেগুলো বানাতে আরো অনেক মূল্য খরচ হবে। তাহলে আপনি নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছেন ওয়েবসাইট তৈরির খরচ কেমন হতে পারে বা ওয়েবসাইট তৈরির খরচ এর পরিমাণ কত হয়। আপনি যদি সম্পূর্ণভাবে জেনে যান যে ওয়েবসাইট তৈরির খরচ কত তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি কিভাবে করা যায়।

ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি

মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় এর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হলো ফ্রী ওয়েবসাইট তৈরি। বর্তমানে ফ্রিতে অনেক ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। তবে আপনিও যদি ফ্রি একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান তাহলে আপনাকে জানতে হবে ফ্রী ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম। ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে জানার মাধ্যমে আপনিও ঘরে বসেই একটি ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলতে পারবেন। 

তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম বা কিভাবে ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করার বিভিন্ন ধরনের নিয়ম রয়েছে। তবে আপনি চাইলেই খুব সহজেই একটি ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন না। এর জন্য আপনাকে অনেক পরিশ্রম করতে হবে। কারণ অনলাইন কোন আলাদিনের চেরাগ না যে আপনি মুখে বলবেন ওয়েবসাইট আর ওয়েবসাইট তৈরি হয়ে যাবে। ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য বেশ কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে। 

আপনি যদি সে সীমাবদ্ধতা মানতে রাজি হন তাহলে আপনি একটি ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। তবে আপনি যদি একটি প্রফেশনাল বা ভাল মানের ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান তাহলে কখনোই সেটি ফ্রিতে তৈরি করতে পারবেন না। এর জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট কিছু অর্থ খরচ করতে হবে। তার কারণ হলো ভালো কোন কিছু পেতে হলে তো আপনাকে টাকা খরচ করতে হবে। তাই আপনি যদি একটি ভালো এবং প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান এবং ডেভলপার এর মাধ্যমে সেই ওয়েবসাইট সেটা করে নিতে চান তাহলে আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ খরচ করতে হবে। চলুন তাহলে এখন জেনে নেওয়া যাক ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম গুলো সম্পর্কে

ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম

মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় এজন্য আপনাকে জানতে হবে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে। আপনি যদি ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে না জানেন তাহলে মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় এ বিষয়ে জানতে পারবেন না। তাই আপনাকে আগে জানতে হবে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে। চলুন তাহলে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। 

সাধারণত ওয়েবসাইট দুই ধরনের হয়ে থাকে তার মধ্যে একটি হল পেইড ওয়েবসাইট এবং অপরটি হলো নন পেইড ওয়েবসাইট। পেইড ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য আপনাকে অর্থ খরচ করতে হবে। বর্তমানে এমন অনেক ডোমেইন এবং হোস্টিং কোম্পানি রয়েছে যারা বিভিন্ন ধরনের ডোমেইন এবং হোস্টিং বিক্রি করার জন্য প্যাকেজ তৈরি করে রেখেছে। আপনি চাইলে সে সফল ওয়েবসাইট থেকে সে সকল প্রতিষ্ঠানের কাছে থেকে একটি ভাল মানের এবং আপনার পছন্দের নামের একটি ডোমেন কিনে নিতে পারবেন। 

একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য যে বিষয়ে জানা খুবই জরুরী সেটি হল ওয়েবসাইটের জন্য ওয়েব পেজ তৈরি। তবে ওয়েবসাইটের জন্য ওয়েব পেজ তৈরি করতে হলে আপনাকে এইচটিএমএল, সিএসএস, জাভা স্ক্রিপ্ট এইসব বিষয়ে জানতে হবে। এই সবগুলোই হলো প্রোগ্রামিং এর কাজ। আপনি যদি প্রোগ্রামিং এর ভাষা বুঝতে পারেন এবং সেগুলো দিয়ে কিভাবে কাজ করে সে বিষয়ে ভালোভাবে বুঝতে পারেন তাহলে খুব সহজেই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলতে পারবেন। 

তাহলে আপনি এখন নিশ্চয় বুঝতে পেরেছেন ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম কি বা কিভাবে ওয়েবসাইট তৈরি করতে হয়। আপনি যদি ওয়েবসাইট তৈরি করেন নিয়ম সম্পর্কে জেনে যান তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক মোবাইল দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে।

মোবাইল দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি

মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় এজন্য আপনাকে জানতে হবে মোবাইল দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম। চলুন তাহলে জেনে না যাক মোবাইল দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে। আপনি যদি মোবাইল দিয়ে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান তাহলে প্রথমে আপনাকে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য সুন্দর একটি নাম নির্ধারণ করতে হবে। এক্ষেত্রে ডোমেইন কেনার জন্য আপনার সেই নামটি প্রয়োজন হবে। 

মোবাইল দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য ডোমেইনের নাম নির্বাচন করা হয়ে গেলে সেই নামের একটি ডোমেন কিনে নিতে হবে। আপনি চাইলে বিভিন্ন ধরনের বিশ্বস্ত ওয়েবসাইট বা বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠান রয়েছে যারা বিভিন্ন ধরনের ডোমেইন বিক্রি করে থাকে তাদের কাছে থেকে আপনি ডোমেইন কিনে নিতে পারবেন। তবে আগে সেখান থেকে চেক করে নিতে হবে যে আপনি যে নামে ডোমেইন কিনবেন সেই ডোমেইন টি এখনো অ্যাভেলেবেল আছে কিনা। 

যদি সেই ডোমেইন অ্যাভেইলেবল থাকে তাহলে খুব সহজেই সেই ডোমেটি আপনি তাদের কাছে থেকে বা সেই ডোমেইন হোস্টিং প্রোভাইডার দের কাছ থেকে কিনে নিতে পারবেন। এরপর আপনি যদি ব্লগার দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করেন তাহলে আপনার কোন ধরনের হোস্টিং এর প্রয়োজন হবে না। আর আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করেন তাহলে আপনাকে একটি ওয়েব হোস্টিং ক্রয় করতে হবে। এরপর মোবাইল দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য আপনাকে যেটি করতে হবে সেটি হল মোবাইলের যে কোন ব্রাউজার থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল করে নিতে হবে। 

এরপর সেই ওয়ার্ডপ্রেসে প্রবেশ করে আপনাকে সেখান থেকে একটি থিম ইন্সটল করে নিতে হবে। ওয়ার্ডপ্রেসে প্রবেশ করার পরে আপনাকে ইমেইল এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে সেটআপ করে নিতে হবে। এরপর পুনরায় সেই ড্যাসবোডে যাওয়ার পরে আপনার ইমেইল এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করে নিতে হবে। এরপর সেই ড্যাশবোর্ডে থাকা মেনু কার্ড থেকে অ্যাপিয়ারেন্স এ যেতে হবে। অ্যাপিয়ারেন্সে যাওয়ার পরে সেখান থেকে থিম অপশনটি থেকে একটি সিম ইন্সটল করে নিতে হবে। এরপর সেটি একটিভ হয়ে গেলে দেখবেন আপনার ওয়েবসাইটটি হুবহু সেই থিমটির মতন হয়ে গিয়েছে। 

এরপর আপনি চাইলে সেই থিমটিকে আপনি আপনার মনের মত করে কাস্টমাইজ করে নিতে পারবেন। তাহলে আপনি খুব সহজেই হয়ে গেলেন একটি ওয়েবসাইটের মালিক। এরপর আপনি সেই ওয়েবসাইট টিকে আপনি আপনার মনের মত করে কাস্টমাইজ করতে পারবেন আপনার সুবিধামত। তাহলে আপনি এখন নিশ্চয় জেনে গেছেন যে মোবাইল দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম কি। আপনি যদি জানেন যে মোবাইলে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক মোবাইল দিয়ে ব্ল‌গ তৈরি করার নিয়ম।

মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি

অনেকের মনে এখন প্রশ্ন আসতে পারে যে মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি কিভাবে করতে হয়। এজন্য আপনাকে জানতে হবে মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে। চলুন তাহলে এখন মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি তেমন কঠিন কোন কাজ নয়। অনেকেই ভাবতে পারে যে মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি অনেক কঠিন একটি কাজ এজন্য আমি আগে বলে নিলাম যে মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি তেমন কোন কঠিন কাজ নয়। 

মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি করার জন্য আপনার মোবাইলটিতে অবশ্যই ডেস্কটপ মোড অন করে রাখবেন। আপনাকে মনে রাখতে হবে যে মোবাইল দিয়ে ব্লগ বানাতে হলে আপনার একটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট থাকা প্রয়োজন। আপনার যদি জিমেইল অ্যাকাউন্ট না থাকে তাহলে আপনি মোবাইল দিয়ে ব্লগ বানাতে পারবেন না। আপনার যদি একটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট থাকে তাহলে সেই জিমেইল অ্যাকাউন্টটি গুগলে লগইন করে নিতে হবে। জি মেইল একাউন্টটি হয়ে গেলে সেখানে থাকা মেনু বারের সার্চ অপশন থেকে ব্লগার লিখে সার্চ দিতে হবে। 

এরপর ব্লগারের যে অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটি আছে সেই ওয়েবসাইটে ঢুকতে হবে এরপর সেই ব্লগার ওয়েবসাইটটি আপনাকে বলবে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য। যদি আপনি একটি নতুন একাউন্ট খুলেন তাহলে সেখানে ক্রিয়েট নিউ বাটনে ক্লিক করতে হবে। নিউ বাটনে ক্লিক করার পর যে পেজটি আসবে সেখানে আপনার ব্লগের নামটি দিয়ে দিতে হবে এবং সেটির জন্য একটি ব্লগার এড্রেস দিতে হবে। এরপর নেক্সট এ ক্লিক করতে হবে। এরপর সেখান থেকে অনেকগুলো থিমের অপশন আসবে অর্থাৎ আপনি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য কোন থিমটি চান। 

সেখান থেকে আপনি আপনার পছন্দমত একটি থিম সিলেক্ট করে নিবেন। এভাবে আপনি একটি মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি করে ফেলতে পারবেন। তবে এই মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি করার জন্য আপনাকে কোন প্রকার টাকা খরচ করতে হবে না। তবে আপনাকে মনে রাখতে হবে যে আপনি যদি নিজের ইচ্ছামত একটি ডোমেইন দিয়ে ব্লগার এ থাকতে চান তাহলে আপনাকে টাকা দিয়ে একটি ডোমেইন কিনতে হবে। তাহলে আপনি এখন নিশ্চয় বুঝতে পেরেছেন মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে। তাহলে এখন ঠিকই বুঝে গেছেন যে মোবাইল দিয়ে ব্লগ তৈরি করা কতটা সহজ কাজ।

আমাদের শেষ কথা

সম্মানিত পাঠক বৃন্দ মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় সেই বিষয়ে আমাদের সম্পূর্ণ আর্টিকেলে ভালোভাবে বলা হয়েছে। মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় এ বিষয়ে আপনি যদি সম্পূর্ণ পড়েন তাহলে আপনিও মোবাইল দিয়ে ঘরে বসেই খুব সহজেই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলতে পারবেন। আশা করি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাকে মোবাইল দিয়ে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে সাহায্য করবে। 

আজকের এই আর্টিকেলের দ্বারা যদি আপনি উপকৃত হতে পারেন তাহলে এই আর্টিকেলটি অন্যদেরকে পড়ার সুযোগ করে দিন যাতে করে তারাও জানতে পারে মোবাইল দিয়ে কিভাবে নিজে নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। তাহলে আজকের মত এ পর্যন্তই। আর এরকম নতুন নতুন এবং গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেলের জন্য নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে থাকুন। ভালো থাকুন এবং সুস্থ থাকুন ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url